রাজশাহীতে নৌকাডুৃবি, নৌকার মালিক-মাঝির বিরুদ্ধে মামলা হচ্ছে

নিউজ ডেস্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজশাহীতে নৌকাডুবির ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া সূচনা নামের এক ছাত্রীসহ দুজন নিখোঁজ রয়েছেন। এই নৌকাডুবির ঘটনা ১১ জনকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে।

এদিকে এ ঘটনার জের ধরে নৌকার দুই মালিকসহ মাঝির বিরুদ্ধে নৌ-পুলিশ মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানা গেছে। আজ শনিবার মামলাটি দায়ের করা হবে।

অন্যদিকে এখনো নিখোঁজ রয়েছেন দুই জন। তাদের একজন সূচনা। তিনি আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ বিবিএ’র তৃতীয় বিভাগের শিক্ষার্থী। আর নিখোঁজ রিমন (১৪)। সে অষ্টম শ্রেণি ছাত্র বলে স্বজনরা জানায়। তাদের খোঁজে সকাল থেকেই ডুবরিরা উদ্ধারকাজে নেমে পড়েছে। তবে দুপুর পর্যন্ত তাদের উদ্ধার করা যায়নি।

এর আগে শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে রাজশাহীর পবার উপজেলার সোনাইকান্দি পদ্মা নদীতে ইঞ্জিনচালিত নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, ঢাকা থেকে বেড়াতে এসে বিকেলে পদ্মায় নিখোঁজ দুজনসহ মোট ১৩ জন একটি ইঞ্জিনচালিত নৌকায় নদী ভ্রমণের জন্য উঠে। তারা কিছুক্ষণ নৌকায় ঘুরেছে নদীতে। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে নৌকাটি পদ্মার সোনাইকান্দি এলাকায় পানি উঠে ডুবে যায়।

এসময় স্থানীয়রা নৌকা যোগে ও সাঁতরে তীরে এসে ৭ জনকে উদ্ধার করে। পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা আরও চারজনকে জীবিত উদ্ধার করে। বাকি দু’জন এখনো নিখোঁজ রয়েছেন।

রাজশাহীর ফায়ার সাভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক জাকির হোসেন বলেন, শুক্রবার একই পরিবারের ১৩ জন যাত্রী নিয়ে একটি ছোট ইঞ্জিনচালিত নৌকা পদ্মা নদীতে ঘুরছিল। এসময় নদীতে ডুবে যায়। এর মধ্যে দুজন নিখোঁজ রয়েছে। তাদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

তিনি বলেন, এছাড়া উদ্ধারকৃতদের মধ্যে দু’জনে অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের রামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিখোঁজদের উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল কাজ করছে।

স/আর

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।