রাজশাহীতে এক ঘন্টা ওষুধের দোকান বন্ধে ভোগান্ত

নিজস্ব প্রতিবেদক:

অফিস বন্ধ নয় মাস। নির্বাচন হয়েছে ১০ বছর আগে। এমন হযবরল অবস্থায় চলছে রাজশাহীর বাংলাদেশ কেমিস্ট এন্ড ড্রাগিস্ট সমিতি (বিসিডিএস) রাজশাহী জেলা শাখার। এমন অবস্থায় সমিতির সদস্যদের সমস্যার কথাগুলো কেন্দ্রে পৌঁছানো মানুষ এই সংগঠনের। তাই বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে বেকায়দায় রয়েছেন তারা।

এমন অবস্থা থেকে পরিত্রাণের লক্ষ্যে এক ঘন্টার কর্মবিতরতি ও বিক্ষোভ মিছিল করেছেন রাজশাহী জেলা বিসিডিএস’র সদস্যরা। ওষুধের দোকান রেখে এক ঘন্টার কর্মবিতরতি পালন করেছে মালিক কর্মচারীরা। আজ বৃহস্পতিবার (০৩ ডিসেম্বর) বেলা ১২টার থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত নগরীর লক্ষ্মীপুর এলাকার ওষুদের দোকানপাট বন্ধ রাখা হয়। ‍ওষুধের দোকান বন্ধ রাখায় দুর্ভোগে পড়েতে হয়েছে ক্রেতাদের।

ওষুধ ক্রেতা আবদুর রাজ্জাক জানান, ‘সাড়ে ১১ টার দিকে ওষুধ কিনে নিয়ে গেলেম। ১২টার দিকে এসে দেখি দোকান বন্ধ। আমার অপারেশনের রোগী। তার জরুরি ওষুধ লাগবে। প্রায় ৪৫ মিনিট থেকে দাঁড়িয়ে আছি। কি করবো বুঝতে পারছিনা।’

সালমা বেগম নামের এক ওষুধ ক্রেতা জানান, ‘চিকিৎসক ওষুধ লেখেছে। কোথায় পাওয়া যায়না। তাই লক্ষ্মীপুরে এসেছি। এখানে ওষুধ পাওয়া যায়। কিন্তু এসে দেখছি, দোকান বন্ধ। এখানে মানুষকে জিজ্ঞাসা করলাম, তারা বলছে ১টার দিকে দোকান খুলবে। তাই দাঁড়িয়ে আছি।’

রাজশাহী শহর ক্ষুদ্র ওষুধ ব্যবসায়ী সমিতির সভাতি শিমুল আহম্মেদ পলাশ জানান, বিসিডিএস ভবন নয় মাস থেকে বন্ধ অবস্থায় রয়েছে। এছাড়া প্রায় ১০ বছর ধরে বিসিডিএস এর রাজশাহী শাখার কোন নির্বাচন হয়নি। এর আগে ২০০৮ সালের নির্বাচনে জয় হয়েছিলো বুলু-হাকিম প্যানেল। সেই নির্বাচনই শেষ নির্বাচন এই সংগঠনের। দীর্ঘদিন নির্বাচন না হওয়ার ফলে সাংগঠনিক কার্যাক্রম পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গেছে।

তিনি আরও জানান, গত বছর (২০১৯) বিসিডিএস রাজশাহী জেলা কমিটির নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়। সেই অনুযায়ি নির্বাচনের সকল কার্যক্রম সম্পন্ন করে বিসিডিএস’র কেন্দ্রীয় কমিটি। এই নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব দেওয়া হয়- কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি দীন আলীকে। তিনি কোন কারণ না দেখিয়ে নির্বাচনের ৭২ ঘন্টা আগে পদত্যাগ করেন। পরে বিসিডিএস’র কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে বিবৃতি দেয়, প্রধান নির্বাচন কমিশনার পদত্যাগ করায় নির্বাচন স্থগিত করা হলো। তার পর থেবে আর নির্বাচন হয়নি।

স/আ

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, silkcitynews@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।