রনির পর অবশেষে স্বপ্নের রাজশাহী কলেজে ভর্তি রিপনের

নিউজ ডেস্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হওয়া অনেকটাই সোনার হরিণের মতো। এ কলেজে সুযোগ পেয়েও ভর্তি হতে পারছিল না মেধাবী শিক্ষার্থী রিপন।  আজ রিপন হোসেন নামের একজন খুব মেধাবী শিক্ষার্থী জীর্ণ সার্ট- প্যান্ট ও পায়ে এক জোড়া অতি সাধারণ স্পঞ্জ স্যান্ডেল পরিহিত অবস্থায় উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণিতে ভর্তির জন্য অধ্যক্ষের কক্ষে উপস্থিত হন । এ সময়  তাকে দেখে মনে হলো ছেলেটা অনেক দারিদ্র্য

তাকে  জিজ্ঞাস করলে যে দুঃখের ইতিহাস শুনাল সেটি যেমন অতি কষ্টের তেমনি অনেকটা আনন্দেরও বটে। বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করে ঢাকায় চলে যাবার পর আগের পরিবারের দীর্ঘদিন খবর নেয় না। সহায় সম্বলহীন মা নঁওগার মান্দা উপজেলার এক নিভৃত পল্লীগ্রামে অন্যের ছোট্ট একটি কারখানায় বিড়ি বাঁধাইয়ের কাজ করে সংসার ও ছেলের পড়ালেখা চালান।

ছেলেটি গত বছরও রাজশাহী কলেজে ভর্তির সুযোগ পেয়েও অর্থাভাবে মা তাঁর ছেলেটিকে রাজশাহীতে পড়ার সাহস নেন নি।এবার রাজশাহী কলেজে আবারও ভর্তির সুযোগ আর হাতছাড়া করতে চান নি তার অভাগিনী মা। এবার সাহসের উৎস ছেলেটির কাছে জানতে চাইলে সে জানাল, তাদের এলাকার রাজশাহী কলেজের একজন শিক্ষকের কাছে জেনেছে, রাজশাহী কলেজ হত দরিদ্র পরিবারের সন্তানদের বিশেষ সহায়তা করে।  আর সহায়না নিয়ে অবশেষে ভর্তি হলো স্বপ্ন পূরণ হলো  রিপনের ।কষ্ট করে পড়াশোনা করে নিজের লক্ষে পৌঁছাতে চায় রিপন। স্বপ্ন পূরণের এ ধাপে সহায়তা করায় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানায় সে। রাজশাহী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মহা. হবিবুর রহমান বলেন,আমরা চাই, অর্থের অভাবে দরিদ্র ঘরের সন্তান যেন শিক্ষা থেকে বঞ্চিত না হয়।

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।