যুব এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন ভারত

নিউজ ডেস্ক

সিল্কসিটিনিউজ ক্রীড়া ডেস্ক:

স্বাগতিক শ্রীলঙ্কাকে ৩৪ রানে হারিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হলো ভারত। এনিয়ে টানা তৃতীয়বার মহাদেশীয় শ্রেষ্ঠত্ব অর্জন করল তাদের যুব ক্রিকেট দল। ২০১২ সালে পাকিস্তানের সঙ্গে ফাইনালে ম্যাচ টাই হলে যৌথভাবে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারত। দুই বছর পর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে হারিয়ে আবার শিরোপা জেতে তারা।

শুক্রবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে কলম্বোর আর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের দারুণ নৈপুণ্যে তারা ৫০ ওভারে করে ৮ উইকেটে ২৭৩ রান। বিশেষ করে হিমাংশু রানার দুটি অর্ধশতাধিক রানের জুটি দলকে শক্ত ভিত গড়ে দেয়। উদ্বোধনী জুটিতে পৃথিবী শোর সঙ্গে ৬৭ ও শুভমান গিলের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ৮৮ রানের জুটি গড়েন এ ওপেনার। ইনিংস সর্বোচ্চ ৭১ রান করেন হিমাংশ। শুভমানের ব্যাটে আসে ৭০ রান।

শ্রীলঙ্কার প্রবীন জয়বিক্রম ও নিপুন রানসিকার বোলিংয়ে শেষদিকে ভারতের লোয়ার অর্ডার ব্যাটসম্যানরা সুবিধা করতে পারেননি। দুইজনই তিনটি করে উইকেট পান।

২৭৪ রানের লক্ষ্যে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকলেও ওপেনার রেভেন কেলি ও অধিনায়ক কামিন্দু মেন্ডিসের ব্যাটিং শ্রীলঙ্কার জয়ের সম্ভাবনা ধরে রেখেছিল। কিন্তু দলীয় ২১১ রানে মেন্ডিস ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে সাজঘরে ফিরলে সব শেষ হয়ে যায়। ২৮ রানের ব্যবধানে শেষ ৫ উইকেট হারায় লঙ্কানরা।

ভারতের অভিষেক শর্মা চারটি ও শেষদিকে রাহুল চাহার তিনটি উইকেট নিয়ে স্বাগতিকদের গুটিয়ে দেন। ৪৮.৪ ওভারে শ্রীলঙ্কার ইনিংস শেষ হয় ২৩৯ রানে। শ্রীলঙ্কার সর্বোচ্চ ৬২ রানের ইনিংসটি খেলেন কেলি। আর দ্বিতীয় সেরা ৫৩ রান করেন মেন্ডিস।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।