যুক্তরাষ্ট্রে কৃষ্ণাঙ্গ হত্যার প্রতিবাদে শামিল লিভারপুল

নিউজ ডেস্ক

পুলিশি হেফাজতে সাবেক কৃষ্ণাঙ্গ বাস্কেটবল তারকা জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুতে উত্তাল হয়ে পড়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তাকে শ্বাসরোধ করে খুনের প্রতিবাদ ও ন্যায়বিচারের দাবিতে দেশটিতে ব্যাপক মাত্রায় বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। শুধু মার্কিনমুলুকেই নয়, প্রতিবাদের ঝড় আছড়ে পড়েছে ব্রিটেনেও।

গেল ২৫ মে যুক্তরাষ্ট্রে নিরস্ত্র খেলোয়াড়ের মৃত্যুর পর অগ্নিস্ফূলিঙ্গের মতো ফুঁসে উঠেছেন কৃষ্ণাঙ্গরা। একের পর এক মিছিল, র্যা লি, সভা-সমাবেশ করছেন তারা। তাদের প্রতি সংহতি প্রকাশ করেছেন লিভারপুলের ফুটবলাররা। করোনা ধাক্কা কাটিয়ে এরই মধ্যে অনুশীলন শুরু করেছেন তারা।

‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনে যোগ দিতে অ্যানফিল্ড সেন্টার-সার্কেলের আশপাশে হাঁটু গেঁড়ে বসেন অলরেডরা। যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য দেশে বর্ণবাদের অবসানের দাবিতে সেই দৃশ্য ছড়িয়ে পড়েছে।

ইতিমধ্যে সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে একটি ছবি পোস্ট করেছেন ভার্জিল, মিলনার, গোমেজ, রবার্টসন, আর্নল্ডরা। ট্রেনিং সেশনের সেই ছবির শিরোনাম ‘একতাই বল’।

খেলোয়াড়দের টুইট করা ছবি নিজেদের অফিশিয়াল পেজে একই শব্দ এবং হ্যাশট্যাগ# ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার দিয়ে শেয়ার করেছে লিভারপুলও।

নারকীয় ওই ঘটনার দিন মিনোপোলিসের এক শেতাঙ্গ পুলিশ কর্মকর্তা আট মিনিটেরও বেশি সময় ধরে ফ্লয়েডর ঘাড়ে হাঁটু গেঁড়ে বসে থাকেন। পরে তার নির্মম মৃত্যু হয়। পরক্ষণে যা যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম প্রসিদ্ধ শহরটি এবং অন্যান্য অঞ্চলে বিক্ষোভের জন্ম দেয়।

টানা সাত দিন ধরে তা অব্যাহত আছে। ক্রমেই তা সারাবিশ্বের সমর্থন পাচ্ছে। সাদা চামড়ার লোকজনও তাতে শামিল হচ্ছেন। ব্যতিক্রম নন অ্যাথলেটরাও। প্রতিবাদের প্রথম দিনে বাস্কেটবল কিংবদন্তি মাইকেল জর্ডানসহ অন্য ক্রীড়াবিদরা মিছিলে ছিলেন।

এর পর নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন ডিসি, লসঅ্যাঞ্জেলেসসহ যুক্তরাষ্ট্রের বেশ কয়েকটি শহরে সহিংসতা তীব্র আকার ধারণ করেছে। সেগুলোতে ব্যাপক পরিমাণে অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে।

হোয়াইট হাউসের নিকটবর্তী সড়কেও নানা স্থাপনায় আগুন দিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। এরই মধ্যে সেগুলোতে কারফিউ জারি ও সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। তা সত্ত্বেও উত্তেজনা বজায় রয়েছে।

ফ্লয়েডের মৃত্যুর জন্য এরই মাঝে মিনোপোলিস পুলিশ ডেরেক ছভিনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। তবু শিকাগো থেকে মিয়ামি, লসঅ্যাঞ্জেলেস থেকে হোয়াইট হাউস– বিক্ষোভের আগুন সর্বত্র ছড়িয়ে পড়েছে।

ফ্লয়েড হত্যার বিচারের দাবিতে প্রতিবাদ উঠেছে বুন্দেসলিগার মঞ্চে। জ্যাডন স্যাঞ্চো থেকে আশরাফ হাকিমি-গেল রোববার ‘জাস্টিস ফর জর্জ ফ্লয়েড’ দাবিতে সোচ্চার হন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের দুই গোলস্কোরার। এটি লেখা টি-শার্ট পরেই ওই দিন মাঠে নামেন ইংলিশ স্ট্রাইকার স্যাঞ্চো।

এ ছাড়া একই দিন গোলের পর ফ্লয়েড মার্ডারের বিচার চান স্প্যানিশ-মরক্কোন ফুটবলার আশরাফ হাকিমি। ওই দিন আরেকটি ম্যাচে বরুশিয়া মনচেনগ্লাডবাচের মার্কাস থুরাম গোলের পর হাঁটু গেঁড়ে বসে শ্রদ্ধা জানান ফ্লয়েডকে।

এর আগে শনিবার আরেকটি ম্যাচে মার্কিন ডিফেন্ডার ওয়েস্টন ম্যাকেনিকেও ‘জাস্টিস ফর জর্জ’ লেখা আর্মব্যান্ড পরে মাঠে দেখা যায়। একই দাবি জানিয়েছেন ফরাসি তারকা কিলিয়ান এমবাপ্পে। এ ছাড়া মার্কিন টেনিস কিংবদন্তি সেরেনা উইলিয়ামস ও ককো গফের কণ্ঠেও বেজে উঠেছে সেই সুর।

 

সুত্রঃ যুগান্তর

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।