মাস্ক ব্যবহারে নানা সমস্যা ও প্রতিকারের উপায়

নিউজ ডেস্ক
  • 20
    Shares

কোভিড থেকে বাঁচতে একটানা মাস্ক পরে থাকার ফলে মুখে মাস্কের মতো দাগ হয়ে যায়। দীর্ঘদিন একটানা মুখে মাস্ক পরতে পরলে অনেকরকম ত্বকের সমস্যা দেখা দিতে পারে। ত্বকের রঙে তফাত হয়ে যায়, সঙ্গে ব্রণ, অ্যালার্জি, র‍্যাশের মতো সমস্যাও দেখা দিতে পারে। মাস্ক পরলে তা নাক আর মুখের উপর চেপে বসে, ফলে বাতাস ঠিকমতো লাগে না মুখে। কাজেই ওই অংশের তাপমাত্রা আর আর্দ্রতা খুব বেড়ে যায়। গরম আর ঘাম একসঙ্গে ত্বকে বিক্রিয়া করে, যার ফলে ব্রণ, ত্বকের রঙে তফাত, ট্রমা লাইনের মতো সমস্যা দেখা দেয়। মাস্ক তো পরতেই হবে, তবে সেই সঙ্গে জেনে রাখতে হবে কিছু কৌশল যেন ত্বকটাও ভাল থাকে।

১) ব্রণ:
নাক-মুখ একটানা চাপা মাস্ক দিয়ে ঢেকে রাখার ফলে ওই অংশে খুব ঘাম হয়। যাঁদের এমনিতেই ব্রণের সমস্যা, তাদের সমস্যা বেশি হয়। মুখের এই অংশ ব্রণে ভরে যায়, ব্যথাও হয়। এ ক্ষেত্রে স্পট ট্রিটমেন্ট সবচেয়ে ভালো কাজ দেবে। ব্রন নিরাময়ের যে সব ক্রিম ওষুধের দোকানে পাওয়া যায়, তা ব্যবহার করে দেখুন। চন্দন বেটে ব্রণের উপরে লাগালে আরাম পাবেন। বাইরে থেকে ফিরে মুখ অয়েল-ফ্রি ফেসওয়াশ দিয়ে ধুয়ে হালকা ময়েশ্চারাইজার লাগান।

২) ঘাম
একে প্রচণ্ড গরম, তার উপর মাস্কে নাকমুখ ঢাকা, এ অবস্থায় ঘাম তো হবেই! আপনার সর্দি-কাশির মতো কোনও উপসর্গ না থাকলে বাড়ির ভিতরে মাস্ক পরে থাকার দরকার নেই। বাইরে যাওয়ার সময় ব্যাগে ওয়েট টিস্যু রাখুন। মুখ ঘেমে গেলে টিস্যু দিয়ে মুছে নিন। নরমাল সেলাইন সাদা তুলায় ভিজিয়ে মুখ মুছতে পারেন। এতে করে মুখের ময়লা কাটে।

৩) লালচে ভাব
এখন অনেক জায়গায় ডাক্তাররা ১২ ঘণ্টা ডিউটি করে, অনেকেই ৯-৫ টা অফিস করে। এতক্ষণ মাস্ক পরলে তাদের ত্বক লাল হয়ে যাওয়ার বা র‍্যাশ বেরোনোর সম্ভাবনা থেকেই যায়। অনেক সময় জায়গাটা চুলকায়, আঁশের মতো চামড়া উঠতে থাকে। মাস্কের মেটারিয়ালের সঙ্গে ত্বকের বিক্রিয়ায় এমন হয়ে থাকে। বাড়ি ফিরেই মাস্ক খুলে ফেলুন। ঠাণ্ডা জলে ধুয়ে নিন জায়গাটা। তারপর আলুর রস অথবা শসার রস লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে নিন, ধীরে ধীরে লালচেভাব কেটে যাবে।

3) অ্যালার্জি
মুখে মাস্ক পরলেই অনেকের জ্বালা করে চুলকায়, দানা দানা বেরোয়। সম্ভবত  যাদের এলাজির সমস্যা আছে তাদের একটু বেশি হয় এটা। এমন সমস্যা হলে এলার্জির ওষুধ খেতে হবে, মুখ সবসময় পরিস্কার রাখতে হবে, মুখে এলভেরা জেল ইউস করতে পারেন। ভালমানের মাস্ক পরতে হবে, প্রয়োজনে একজন চর্ম রোগের চিকিৎসকের সাথে পরামর্শ করতে পারেন।

4) ত্বকের রঙে তফাত
একটানা কোনও জায়গা চাপা থাকলে সে অংশে রঙের তফাত হয়ে যায়। একটানা মাস্ক পরার অভ্যেস করে ফেললে আপনার মুখেও একই অবস্থা হবে, অর্থাৎ মাস্কের ঠিক নিচের অংশটুকুর রং মুখের বাকি অংশের চেয়ে হালকা দেখাবে। সেক্ষেত্রে  চোখে সানগ্লাস পরতে পারেন, একটা সানব্লক ব্যবহার করতে পারেন, বাসায় ফিরে এসে মুখে ময়দা অথবা শশার রস লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলতে পারেন।

বিশেষ টিপস
1)পরিষ্কার শুকনো মাস্ক পরুন:  বাইরে বেরোলে সঙ্গে দু’ তিনটি বাড়তি মাস্ক রাখুন। সঠিক নিয়মে মাস্ক পরুন। মাস্ক এর ভিতরে হাত দিবেন না।

2) মাস্ক পরার আগে মুখে সানব্লক ক্রিম বা সানব্লক পাউডার মেখে নিন: মাস্ক পরার আগে সানব্লক ব্যবহার করে তার উপর হালকা করে পাউডার লাগিয়ে নেন। এতে করে মুখটাও কম ঘামাবে।

3) ত্বকের নিয়মিত যত্ন নিন: মুখ নিয়মিত পরিষ্কার করে টোনার আর ময়শ্চারাইজার লাগিয়ে রাখুন। বাইরে গেলে সানব্লক ব্যবহার করুন, বাসায় এসে ভাল করে মুখ ধুয়ে ফেলুন, নিয়মিত লেবু, মাল্টা, কমলা, সবুজ শাক-সবজি খাবেন। রাতে ৮ ঘণ্টা ঘুমাবেন, রাত জাগা থেকে বিরত থাকবেন।

4) স্কিন ভাল রাখতে বরফ:  ত্বক খুব জ্বালা করলে বা লাল হয়ে গেলে বরফের কমপ্রেস নিতে পারেন। পাতলা কাপড়ে বরফ মুড়ে লাল হয়ে যাওয়া অংশে ধীরে ধীরে লাগালে আরাম পাবেন।

লেখক: চিকিৎসক, চর্ম ও যৌন বিভাগ, কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতাল, রাজারবাগ

 

সুত্রঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।