রবিবার , ২ অক্টোবর ২০২২ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ ও দুর্নীতি
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কৃষি
  7. খেলা
  8. চাকরীর খবর
  9. ছবিঘর
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. ধর্ম
  14. নারী
  15. নির্বাচিত খবর

মান্দায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ীতে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর অনশন

নিউজ ডেস্ক
অক্টোবর ২, ২০২২ ৫:৫৮ অপরাহ্ণ


মান্দা প্রতিনিধি:

নওগাঁর মান্দায় বিয়ের দাবিতে দুইদিন ধরে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী (২৩) । বিয়ের দাবি পুরণ না হওয়া পর্যন্ত অনশন চালিয়ে যাওয়া এবং আত্মহত্যার হুমকিও দিয়েছেন ছাত্রী।

প্রেমিক যুবক উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের পারইটুঙ্গী গ্রামের বিমল চন্দ্র মণ্ডলের ছেলে মিঠুর কুমার মণ্ডল (৩২)। মিঠুন নওগাঁর বদলগাছি উপজেলা যুবউন্নয়ন অধিদপ্তরে সহকারী কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত আছেন তিনি।

ভুক্তভোগী তরুণী জানান, ফেসবুকের মাধ্যমে প্রায় এক বছর আগে মিঠুন কুমারের সঙ্গে তাঁর পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে তাঁদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমের সূত্র ধরে মিঠুন রাজশাহী শহরে তাঁর সঙ্গে একাধিকবার দেখা সাক্ষাত করেন।

ওই তরুণী আরও বলেন, ‘গত ২২ আগস্ট সন্ধ্যার দিকে মিঠুন আমাকে রাজশাহী শহরের বোয়ালিয়া থানার পাশে একটি ছাত্রাবাসে নিয়ে যান। মিঠুনের মামাতো ভাই রকি ওই ছাত্রবাসে থেকে লেখাপড়া করতেন। ওই রাতে আমি ও মিঠুর একই কক্ষে রাতযাপন করেছি। এসময় বিয়ের প্রলোভন দিয়ে মিঠুন আমার সঙ্গে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কে মিলিত হন।’

তরুণী অভিযোগ করে বলেন, ‘এরপর থেকে মিঠুন আমার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দেন। মোবাইল ফোনও রিসিভ করেন না। এ অবস্থায় অনেক কষ্টে মিঠুনের গ্রামের ঠিকানা সংগ্রহ করেছি। এখন বিয়ের দাবিতে অনশন করছি। দাবি পুরণ না হলে এখানেই আত্মাহুতি দিব।’

বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য বেলাল হোসেন বলেন, সংবাদ পেয়ে শনিবার সন্ধ্যার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই তরুণীকে বোঝানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু তরুণী বিয়ের দাবিতে অনঢ় রয়েছে। অবস্থা বিবেচনায় প্রামপুলিশ পাহারায় প্রতিবেশী সুকেশ চন্দ্র মণ্ডলের বাড়িতে রাখা হয়েছে তাঁকে। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও মান্দা থানার ওসিকে অবহিত করা হয়েছে।

মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহিনুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মেয়েটি মামলা করতে চাইলে সব ধরণের আইনি সহায়তা দেওয়া হবে।

এস/আই

সর্বশেষ - রাজশাহীর খবর