বড়াইগ্রামে নিখোঁজ ইজিবাইক চালকের লাশ  উদ্ধার


বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি :

নাটোরের বড়াইগ্রাম থেকে নিখোঁজের ১৮ ঘন্টা পর লালপুরে ঘাটচিলান এলাকা থেকে খোরশেদ আলম মিলন (৩৫) নামে এক ইজিবাইক চালকের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সন্ধ্যা ৭টায় ওই গ্রামের একটি আখ ক্ষেতের ভিতরে থেকে তার কাদা মাখা লাশ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় সোমবার একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহত মিলন বড়াইগ্রাম উপজেলা বনপাড়া পৌর শহরের মহিষভাঙ্গা গ্রামের ফখরুল আলমের ছেলে। খবর পেয়ে বড়াইগ্রাম সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শরীফ আল রাজী, বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সিদ্দিক ও বনপাড়া পৌর মেয়র কেএম জাকির হোসেন ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শনিবার রাতে মিলন ভাড়া মারার উদ্দেশ্যে ইজিবাইকটি নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। এরপর সারা রাত তিনি আর বাড়ি ফিরে আসেননি। পরে সকালে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করেও তাকে পাওয়া যায়নি। রোববার চাঁদপুর-কদিমচিলান সড়কের ওপর তার ব্যবহৃত জুতা দেখতে পায় স্থানীয়রা। পরে আশেপাশে খোঁজাখুঁজির একপর্যায়ে আখ ক্ষেতের ভেতর তার লাশ পাওয়া যায়। পরে স্থানীয়রা খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে।

বড়াইগ্রাম সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শরীফ আল রাজী জানান, ইজিবাইক চালক শনিবার রাত থেকে নিখোঁজ ছিলেন, তার পরিবার এ ব্যাপারে বড়াইগ্রাম থানাকে অবহিত করলে আমরা গতকাল থেকেই তাকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছি। কিন্তু সন্ধ্যায় তার লাশ পাওয়া গেছে। নিহতের লাশ মর্গে পাঠানোসহ মামলা দায়ের করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে ইজিবাইক ছিনতাই করতেই এই হত্যাকান্ড, আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে প্রকৃত দোষীদের আইনের আওতায় আনার চেষ্টা করছি।

এস/আই