বৃহস্পতির ট্রোজান গ্রহাণুতে সম্পদের সন্ধানে নাসার নতুন অভিযান শুরু

মহাকাশ গবেষণায় এই দশক নতুন নতুন দিশা দেখাবে, একথা অনেক আগেই জানিয়েছিল নাসা। নাসা ছাড়াও একাধিক বেসরকারি মহাকাশ গবেষণা সংস্থা বিভিন্ন পরীক্ষামূলক গবেষণা চালাচ্ছে। চাঁদ, মঙ্গল এমনকি বুধের উদ্দেশেও পাঠানো হয়েছে মহাকাশ যান। এবার আরও অজানা এলাকায় পাড়ি দিল নাসা।

সৌরশক্তি চালিত নাসার যান ‘লুসি’ বৃহস্পতি গ্রহের পথে রওনা দিয়েছে। বৃহস্পতিকে কেন্দ্র করে যে সকল গ্রহাণু বা অ্যাস্টেরয়েড প্রদক্ষিণ করে চলেছে, তার খোঁজখবর নেবে নাসার এই মহাকাশ যান। এই গ্রহাণুদের বলা হয় ট্রোজান অ্যাস্টেরয়েড। এই চত্বরে এখনও কোনও দেশের মহাকাশ যান পৌঁছায়নি।

গতকাল শনিবার (১৬ অক্টোবর) নাফ্লোরিডার কেপ ক্যানাভেরাল থেকে ‘অ্যাটলাস ভি’ রকেটে চেপে পাড়ি দিল লুসি। এই নামকরণ হয়েছে দুনিয়ার আদিম এক মনুষ্য প্রজাতির নামে। টানা ১২ বছর কাজ করবে লুসি। ট্রোজান গ্রহাণুরা কেউ লাল রঙের, আবার কেউ সবুজ, কেউবা আবার ধূসর।

কেন এই রঙের পার্থক্য? আদতে কী কী মৌল বা ধাতু আছে তা দেখবে লুসি। সোনা, কোবাল্ট, নিকেল, প্ল্যাটিনাম ইত্যাদি ধাতু থাকার সম্ভাবনা রয়েছে গ্রহাণুগুলোতে। সেসব কতটা পরিমাণে আছে তা সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে যাচ্ছে লুসি।

 

সূত্রঃ বাংলাদেশ প্রতিদিন