শনিবার , ১৬ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ ও দুর্নীতি
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কৃষি
  7. খেলা
  8. চাকরীর খবর
  9. ছবিঘর
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. ধর্ম
  14. নারী
  15. নির্বাচিত খবর

বিজয় দিবসে শহীদ শামসুজ্জোহা ইনস্টিটিউট অব বায়োসায়েন্সের শ্রদ্ধাঞ্জলি

নিউজ ডেস্ক
ডিসেম্বর ১৬, ২০২৩ ৯:৪৫ অপরাহ্ণ

রাবি প্রতিনিধি:

মহান বিজয় দিবসে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত শহীদ শামসুজ্জোহা ইনস্টিটিউট অব বায়োসায়েন্সস। শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ^বিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন ইনিস্টিউটের প্রতিষ্ঠাতা ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন। পরে মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদ মুক্তিযোদ্ধাসহ নারী-পুরুষ সকলের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়।

এসময় ইনিস্টিউটের প্রতিষ্ঠাতা হেলাল উদ্দিন বলেন, দীর্ঘ ৯মাস মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে ১৯৭১ সালের ১৬ই ডিসেম্বরের এই দিনে আমরা পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীদেরকে পরাজিত করে বিজয় অর্জন করেছি। এই বিজয়ের ফলে বাংলাদেশ একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে পৃথিবীর মানচিত্রে স্থান করে নেয়। ১৯৭১ সালের এই দিনে বিজয় অর্জনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের দ্বিতীয়  উপনিবেশিক শাসনের অবসান ঘটে। দেশভাগের সময় বাঙালিরা মনে করেছিল পাকিস্তান রাষ্ট্রের সাথে সম্পৃক্ত হলে তাদের ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটবে। কিন্তু তৎকালীন পাকিস্তানি শাসকদের জুলুম, অত্যাচার, নির্যাতন ও শোষণের ফলে পূর্ব পাকিস্তান একটা আধা-উপনিবেশিক রাষ্ট্রে পরিনত হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে পাকিস্তানি জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে স্বাধীনতা আন্দোলনে পূর্ব পাকিস্তানের সর্বস্তরের জনসাধারণ সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করে।

শহীদ শামসুজ্জোহার আত্মত্যাগ স্মরণ করে তিনি আরও বলেন, জোহা স্যার পাকিস্তানের সামরিক শাসন বিরোধী আন্দোলনের প্রথম শহীদ বুদ্ধিজীবী। ১৯৬৯ সালে সামরিক তিনি শহীদ হন। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের মেইন গেটের সামনে তাঁকে হত্যা করা হয়। শামসুজ্জোহার স্যারের হত্যাকান্ড বাংলাদেশের স্বাধীনতার অনুঘটক হিসেবে কাজ করেছিল। তাকে হত্যা করার পর জান্তা সরকার বিরোধী আন্দোলন আরও তীব্র হয় এবং বঙ্গবন্ধুসহ অন্যান্যদের মুক্তি দেওয়া হয়। শামসুজ্জোহা স্যারের এ আত্মত্যাগ নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের অনেকেই জানেন না। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের শিক্ষক এবং তৎকালীন প্রক্টর ড. শামসুজ্জোহা স্যারের আত্মত্যাগকে স্মরণীয় করে রাখার প্রচেষ্টা হিসেবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত শহীদ শামসুদ্দোহা ইনস্টিটিউট অব বায়েসায়েন্সেস  নামক প্রতিষ্ঠান রাজশাহীতে যাত্রা শুরু করে। মহান বিজয় দিবসে আমরা আরও একবার জোহা স্যারের আত্মত্যাগ দেশবাসীকে স্মরণ করিয়ে দিতে চাই।

প্রসঙ্গত, শহীদ শামসুজ্জোহা ইনস্টিটিউট অব বায়োসায়েন্সেস রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের অধীনে পরিচালিত একটি ইনিস্টিটিউট। এখানে ৩টি বিভাগে শিক্ষার্থী ২০২৩-২৪ সেশন থেকে শিক্ষার্থীরা ভর্তি হতে পারবেন। ২০২২ সালে ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক হেলাল উদ্দিন এই ইনিস্টিটিউটের প্রতিষ্ঠা করেন

সর্বশেষ - রাজশাহীর খবর