বুধবার , ১১ মে ২০২২ | ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ ও দুর্নীতি
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কৃষি
  7. খেলা
  8. চাকরি
  9. ছবিঘর
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. ধর্ম
  14. নারী
  15. নির্বাচিত খবর

বানেশ্বরে উদ্ধার হওয়া ৯২ হাজার লিটার তেল টিসিবির মাধ্যমে নায্যমূল্যে বিক্রি হবে

Paris
মে ১১, ২০২২ ৮:৩২ অপরাহ্ণ


নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর বাজারে চারটি গুদাম থেকে উদ্ধার হওয়া ৯২ হাজার ৬১৬ লিটার ভোজ্যতেল ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) মাধ্যমে নায্যমূল্যে ভোক্তাদের কাছে বিক্রি করা হবে। ইতোমধ্যেই তেলগুলো টিসিবির মাধ্যমে বিক্রি করার অনুমতির জন্য রাজশাহীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-৩ এ আবেদন জানানো হয়েছে। আজ বুধবার (১১ মে) জেলার পুঠিয়া থানার ওসি (তদন্ত) ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) আব্দুল বাতেন এই আবেদন জানান।

এদিকে অবৈধভাবে তেল মজুদ রেখে বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরী করায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে জেলার পুঠিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাতে পুঠিয়া থানার ওসি (তদন্ত) আব্দুল বাতেন বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন। এই মামলায় গ্রেপ্তার হওয়া ৫ জনকে আজ বুধবার দুপুরে আদালতের মাধ্যজে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেপ্তার ৫ জন হলেন- বানেশ^র বাজারের সরকার এন্ড সন্স এর সত্ত্বাধিকারী শ্রী বিকাশ সরকার ওরফে গোলাপ (৫৮), এন্তাজ স্টোরের মালিক মো. এমদাদুল হক (৪০), মেসার্স পাল এন্ড ব্রাদার্স এর মালিক শৈলেন কুমার পাল (৬৫), রিমা স্টোরের মালিক রাজিব সাহা (৩৭) ও ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-২০-১১১৭) ড্রাইভার মো লিটন (২৫)।

জানতে চাওয়া হলে রাজশাহীর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বিশেষ শাখা) ও মুখপাত্র ইফতেখায়ের আলম বলেন, ‘বেশি মুনাফার লোভে রোজার আগে থেকে এসব ব্যবসায়ীরা তেল মজুত করে রেখেছিলেন। বাজারে কৃত্রিম সংকটের জন্য এরাও দায়ী। তাঁরা তেলের ব্যবসার বৈধ কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেননি। তাই সব তেল জব্দ করা হয়েছে। এই তেলগুলো জেলা পুলিশের হেফাজতেই রয়েছে। তবে তেলগুলো টিসিবির মাধ্যমে ন্যায্য মূল্যে ভোক্তাদের কাছে বিক্রির অনুমতির জন্য বুধবার (১১ মে) পুঠিয়া থানার ওসি (তদন্ত) রাজশাহী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-০৩ এ আবেদন জানিয়েছেন। অনুমতি পেলেই তেলগুলো টিসিবির কাছে হস্তান্তর করা হবে।’ এছাড়া গ্রেপ্তারকৃত ৫ জনকে আদালতের মাধ্যমে বুধবার দুপুরে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার (১০ মে) বিকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলার পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বর বাজারের চারটি গুদামের সন্ধান পায় জেলা পুলিশ। পরে জেলা পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেনের নেতৃত্বে জেলা পুলিশের গোয়েন্দা (ডিবি) শাখা ও পুঠিয়া থানার প্রায় ৫০ জন পুলিশ সদস্য এই অভিযানে অংশ নেয়। অভিযান চালিয়ে বানেশ^র বাজারের সরকার এন্ড সন্স থেকে ৪৮ ব্যারেল সয়াবিন ও ২৬ ব্যারেল পামওয়েল, এন্তাজ স্টোর থেকে ২২ ব্যারেল সয়াবিন ও ১২০ ব্যারেল পাম, মেসার্স পাল এন্ড ব্রাদার্স থেকে তিন ব্যারেল সয়াবিন ও ১০০ ব্যারেল পাম, রিমা স্টোর থেকে ৪৮ ব্যারেল সয়াবিন ও ২৭ ব্যারেল পাম এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুরাতন বাজারের উদ্দেশ্য বোঝাই করা একটি ট্রাক থেকে ৬০ ব্যারেল পাম তেল জব্দ করা হয়েছে।

প্রতিটি ব্যারেলে ২০৪ লিটার করে ভোজ্যতেল রয়েছে। সব মিলিয়ে মোট ১২১ ব্যারেল সয়াবিন তেল ও ৩৩৩ ব্যারেল পাম তেল জব্দ করা হয়েছে। জব্দ করা মোট ৯২ হাজার ৬১৬ লিটার তেলের মধ্যে সয়াবিন ২৪ হাজার ৬৮৪ লিটার। আর পাম ৬৭ হাজার ৯৩২ লিটার।

এএইচ/এস

সর্বশেষ - অপরাধ ও দুর্নীতি