বাগাতিপাড়ায় গৃহনির্মাণসহ বিভিন্ন প্রকল্প পরিদর্শনে বিভাগীয় কমিশনার

বাগাতিপাড়া (নাটোর) প্রতিনিধি: মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে নাটোরের বাগাতিপাড়ায় ভূমিহীন ও গৃহহীনদের  জন্যে বাড়ি নির্মাণ কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার এসব নির্মাণাধীন গৃহের কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করেন রাজশাহীর বিভাগীয় কমিশনার মোঃ হুমায়ুন কবীর খোন্দকার।

পুরো জেলায় প্রায় দশ কোটি টাকা ব্যয়ে ৫৫৮টি গৃহ নির্মাণের কাজ চলছে। এর মধ্যে বাগাতিপাড়া উপজেলার কামারপাড়া এলাকায় গুচ্ছাকারে নির্মাণাধীন ২৩ টি বাড়ির নির্মাণ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শণ শেষে উপকার ভোগীদের উদ্দেশ্যে হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর লালিত স্বপ্ন পূরণে দেশের ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারের গৃহ নির্মাণ করে দিচ্ছে সরকার। পর্যায়ক্রমে সারাদেশে নয় লাখ গৃহ নির্মাণ করা হবে। প্রথম পর্যায়ে সারাদেশে ৬৫ হাজার ৭২৬টি বাড়ির মধ্যে রাজশাহী বিভাগে ছয় হাজার ৭৭০টি বাড়ির নির্মাণ কাজ দ্রুত শেষ হবে। এসব বাড়িতে অবস্থানকালে উপকারভোগীরা রাষ্ট্রের কল্যাণে কাজ করে যাবেন বলে আশা প্রকাশ করেন বিভাগীয় কমিশনার।

এর আগে তিনি সকালে উপজেলা চত্তরে শিশুদের জন্যে ডে কেয়ার সেন্টারের কার্যক্রম এর উদ্বোধন করেন। এছাড়াও উপজেলা ভূমি অফিস, ইউএনও পার্ক, ফাগুয়াড়দিয়াড় ইউনিয়ন পরিষদ, সান্ন্যালপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নির্মিত নতুন শহীদ মিনার পরিদর্শন করেন। শেষে দয়ারামপুর ইউনিয়নের পাঁচুড়িয়া আশ্রয়ন প্রকল্পের বসবাসরতদের মাঝে শীতবস্ত্র ও শুকনা খাবার বিতরণ করেন।

এসময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন নাটোরের জেলা প্রশাসক মোঃ শাহরিয়াজ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অহিদুল ইসলাম গকুল, উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রিয়াংকা দেবী পাল প্রমুখ।

এদিকে গৃহহীনদের গৃহনির্মান বিষয়ে নাটোরের জেলা প্রশাসক শাহরিয়াজ বলেন, জেলার নির্মাণাধীন ৫৫৮টি বাড়ির নির্মাণ কাজ এখন শেষের পথে। বাড়িগুলোতে স্থানীয়ভাবে জনস্বাস্থ্য বিভাগসহ অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের সহায়তায় নিরাপদ পানির ব্যবস্থাও করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে জেলা কৃষি ও খাস জমি ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় ৫৫৮ ব্যক্তির অনুকুলে প্রত্যেকের দুই শতাংশ জমির মালিকানা সংক্রান্ত কবুলিয়ত নথি অনুমোদন করা হয়েছে।

বাগাতিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান অহিদুল ইসলাম গকুল জানান, সরকারী নীতিমালা অনুযায়ী গুণগত মান বজায় রেখে বাড়িগুলেঅ নির্মাণ করা হচ্ছে। এই লক্ষ্যে পরিষদের নিয়মিত তদারকি অব্যাহত আছে।

বাগাতিপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াঙ্কা দেবী পাল জানান, কামারপাড়াতে নির্মাণাধীন বাড়ির ২৩ পরিবারের উপকারভোগীদের পেশাগত উন্নয়নের লক্ষ্যে বাড়িগুলোর পাশ দিয়ে বয়ে চলা মামুদপাড়া বিলের খালে মাছ চাষের জন্যে সমবায় সমিতি গড়ে তোলার উদ্যোগ গ্রহন করা হবে।

উল্লেখ্য বাগাতিপাড়া উপজেলায় মোট ৪৪টি বাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে।

স/রি

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, silkcitynews@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।