বাগাতিপাড়ায় এক হাজার বসতবাড়িতে হচ্ছে সবজি খামার

নিউজ ডেস্ক
  • 569
    Shares

বাগাতিপাড়া (নাটোর) প্রতিনিধি:

প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী করোনা পরিস্থিতিতে প্রতি ইঞ্চি জমির সুষ্ঠ ব্যবহারের লক্ষ্যে নাটোরের বাগাতিপাড়ায় এক হাজার বসতবাড়িতে সবজি খামার তৈরীর উদ্যোগ নিয়েছে স্থানীয় উপজেলা কৃষি বিভাগ। শুক্রবার জামনগর ইউনিয়ন থেকে শুরু হয়েছে এ কাজ।

এক হাজার বাড়ির আঙ্গিনায় পড়ে থাকা জমিতে গড়ে তোলা হবে পুষ্টিখামার। সেখানে থাকবে বিভিন্ন প্রকারের সবজি। এর নাম দেওয়া হয়েছে ‘কিচেন গার্ডেন’।

এতে করোনাকালে সবজি ঘাটতি দূর হবে। উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় এ উদ্যোগ নিয়েছে বাগাতিপাড়া উপজেলা কৃষি অফিস।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোমরেজ আলী জানান, সবজি খামারের উদ্যোগ বাস্তবায়নে ইতোমধ্যে উপজেলার জামনগর ইউনিয়নের হাঁপানিয়া, মাঝপাড়া, কালিকাপুর ও ভিতরভাগ গ্রামে ৫০টি পরিবারের মধ্যে বিভিন্ন প্রকারের সবজির বীজ বিতরণ করা হয়েছে। সবজি বীজের মধ্যে রয়েছে ঢেঁড়শ, লালশাক, পুঁইশাক, ডাটা শাক ও চাল কুমড়ার উন্নতমানের বীজ।

তিনি জানান, বসতবাড়ির পতিত জায়গাগুলোকে চাষের আওতায় নিয়ে আসতে পারলে সংশ্লিষ্ট পরিবারের সদস্যদের কোনো সবজি কিনে খেতে হবে না। ফলে তাদের পারিবারিক পুষ্টি চাহিদা মিটবে সবজি বাগান থেকে। এ ছাড়াও বাড়তি সবজি বিক্রি করে বাড়ির নারী সদস্যরা আর্থিকভাবেও স্বাবলম্বি হতে পারবেন। পর্যায়ক্রমে উপজেলার ৫ টি ইউনিয়ন এবং পৌরসভার প্রত্যেক ওয়ার্ডের বসতবাড়িতে সবজি খামার করা হবে।

উপজেলায় মোট এক হাজার বসতবাড়িকে পুষ্টিখামারে পরিণত করা হবে। উপসহকারী কৃষি অফিসারদের মাধ্যমে হাতে-কলমে বসতবাড়িতে সবজি চাষপদ্ধতি শেখানোর উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে বলে তিনি জানান।

এদিকে শুক্রবার বিকাল ৫ টায় জামনগরের হাঁপানিয়া গ্রামে বসত বাড়ির নারীদের মাঝে বীজ বিতরণের উদ্বোধন করা হয়েছে। ইউএনও প্রিয়াংকা দেবী পাল এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এসময় সেখানে উপজেলা কৃষি অফিসার মোমরেজ আলী, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কালিকাপুর গ্রামের সনেকা বেগম, ভিতরভাগ গ্রামের শম্পা বেগম ও সাগরি বেগম জানালেন, কৃষি অফিস থেকে সবজির বীজ পেয়ে তারা খুব খুশি। বাড়ির আঙ্গিনার পড়ে থাকা জমিতে তারা সবজির এই বীজ বপন করে খামার গড়ে তুলবেন।

স/আর

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।