মঙ্গলবার , ১২ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ ও দুর্নীতি
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কৃষি
  7. খেলা
  8. চাকরীর খবর
  9. ছবিঘর
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. ধর্ম
  14. নারী
  15. নির্বাচিত খবর

বাগাতিপাড়ায় নবজাতকের দাফনের পর দগ্ধ মায়েরও মৃত্যু

নিউজ ডেস্ক
ডিসেম্বর ১২, ২০২৩ ৯:৩৩ অপরাহ্ণ


বাগাতিপাড়া প্রতিনিধি :
নাটোরের বাগাতিপাড়ায় আগুনে দগ্ধ গর্ভবতী নারীর প্রসব করা নবজাতকের মৃত্যুর একদিন পর মায়েরও মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ওই গৃহবধুর নাম উর্মি বেগম। তিনি উপজেলার বাটিকামারি গ্রামের রুবেল হোসেনের স্ত্রী।

স্বজনরা জানান, প্রায় এক বছর পূর্বে রুবেলের সাথে উর্মির বিয়ে হয়। তিনি সাত মাসের গর্ভবতী ছিলেন। গত শুক্রবার বিকালে স্বামীর বাড়িতে রান্না ঘরে খড়ির আগুনে চুলায় তিনি রান্না করছিলেন। এ সময় গৃহবধু উর্মির শরীরে থাকা কাপড়ে আগুন লাগে। পরে চিৎকার চেঁচামেচি করলে স্বজনরা দগ্ধ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে বাগাতিপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়।

পরে সেখান থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও পরে ঢাকার শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই হাসপাতালে রোববার দগ্ধ উর্মি এক নবজাতকের জন্ম দেন। পরদিন সোমবার নবজাতক মারা গেলে ওই দিনই ঢাকা থেকে বাগাতিপাড়া এনে নবজাতককে দাফন করা হয়। এ ঘটনার পর মঙ্গলবার ভোররাতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দগ্ধ মা উর্মি বেগমও মারা যান।

মা ও শিশুর এমন মর্মান্তিক মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এ বিষয়ে স্থানীয় দয়ারামপুর ইউপি চেয়ারম্যান মাহাবুর হোসেন মিঠু ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সন্ধ্যার দিকে গৃহবধু উর্মির লাশ বাড়িতে আনা হয়েছে। রাতে জানাজা শেষে দাফনের কথা রয়েছে।

সর্বশেষ - রাজশাহীর খবর