বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট ‘সেঞ্চুরির’ সুযোগ

নিউজ ডেস্ক

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক :

আসন্ন নিউজিল্যান্ড সিরিজে বাংলাদেশের সামনে রেটিং পয়েন্ট বাড়ানোর সূবর্ণ সুযোগ রয়েছে। রয়েছে রেটিং পয়েন্টের ‘সেঞ্চুরির’ সুযোগও।

 

র‌্যাঙ্কিং কিংবা রেটিং পয়েন্ট কোনোটি নিয়ে বাংলাদেশের সীমিত পরিসরের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা কখনই মাথা ঘামান না! নিজেদের খেলায় পূর্ণ মনযোগ তার। বাংলাদেশ যে সাত নম্বর পজিশনে থেকে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে অংশ নেওয়ার সুযোগ পেয়েছে সেটাও নিজেদের ধারাবাহিক সাফল্যের কারণে।

 

র‌্যাঙ্কিং নিয়ে বাড়তি চিন্তা করলে এ সাফল্য পাওয়া সম্ভব হত না বলে মনে করেন মাশরাফি। তবুও নির্দিষ্ট ‘সংখ্যা’ সব সময়ই তৃপ্তি দেয়।

 

র‌্যাঙ্কিংয়ে সাতে থাকা বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট ৯৫, চারে থাকা নিউজিল্যান্ডের রেটিং পয়েন্ট ১০৯। নিউজিল্যান্ডকে হোয়াইটওয়াশ করতে পারলে বাংলাদেশের রেটিং পয়েন্ট হবে ১০০, নিউজিল্যান্ডের ১০৫। বাংলাদেশ ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতলে ২ রেটিং পয়েন্ট বাড়বে বাংলাদেশের। ৯৫ থেকে রেটিং পয়েন্ট হবে ৯৭। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ড ২ রেটিং পয়েন্ট হারাবে।

 

যদি নিউজিল্যান্ড ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় তাহলে বাংলাদেশ ও নিউজিল্যান্ডের রেটিং পয়েন্টের কোনো পরিবর্তন হবে না। তবে নিউজিল্যান্ড যদি ৩-০ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নেয় বাংলাদেশ ৪ রেটিং পয়েন্ট হারাবে। নিউজিল্যান্ডের পুঁজিতে যোগ হবে ২ রেটিং পয়েন্ট। রেটিং পয়েন্টের ‘সেঞ্চুরি’ হলে পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের থেকে পয়েন্ট ব্যবধানও বাড়বে বাংলাদেশের।

 

এদিকে কিউইদের বিপক্ষে হোয়াইটওয়াশ এড়াতে পারলে ২০১৯ বিশ্বকাপে কোয়ালিফাইয়ের ক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে যাবে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ আটে থাকতে পারলে সরাসরি বিশ্বকাপে অংশ নিতে পারবে বাংলাদেশ। যদি এ সময়ে র‌্যাঙ্কিংয়ে আটের মধ্যে থাকতে না পারে তাহলে ২০১৮ সালে আইসিসি সহযোগী দেশের সঙ্গে কোয়ালিফাইং ম্যাচ খেলে বিশ্বকাপের টিকেট পেতে হবে বাংলাদেশকে।

 

২০১৮ সালে কোয়ালিফাইং টুর্নামেন্টের ম্যাচগুলো বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

সূত্র :রাইজিংবিডি

 

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।