রবিবার , ১৬ অক্টোবর ২০২২ | ১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ ও দুর্নীতি
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কৃষি
  7. খেলা
  8. চাকরি
  9. ছবিঘর
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. ধর্ম
  14. নারী
  15. নির্বাচিত খবর

পুঠিয়ায় মেম্বারের মার খেয়ে হাসপাতালে ব্যবসায়ী

Paris
অক্টোবর ১৬, ২০২২ ৯:১১ অপরাহ্ণ

পুঠিয়া প্রতিনিধি:

রাজশাহীর পুঠিয়ার ধোপাপাড়া বাজারে দলবল নিয়ে এক ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে এক ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে। শনিবার (১৫ অক্টোবর) বিকেলে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী সাইদুরের  শ্বশুর পুঠিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

থানায় অভিযোগ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, জিউপাড়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের মেম্বার আব্দুস সালামের ছেলে মুন্না ও তার ভাইয়ের সাথে মুদি জিনিসপত্র কেনাকাটাকে নিয়ে একই এলাকার সাইদুর নামের এক ক্ষুদ্র মুদি ব্যবসায়ীর সঙ্গে ঝামেলা হয়। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে শুরু হয় হাতাহাতি। তখন সালাম মেম্বারের নেতৃত্বে আরও কিছু লোকজন সেখানে এসে ওই ক্ষুদ্র মুদি ব্যবসায়ীকে বেধড়ক মারধর করেন। এতে করে ওই ব্যবসায়ী সাইদুর ও তার ভাতিজা আহত হন। বর্তমানে সে পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ভুক্তভোগী সাইদুর জানায়, ওই মেম্বারের ছেলে মুন্না ১০০ টাকার সুপারি কিনে দাম না দিয়ে চলে যেতে চান। আমি তার কাছ থেকে টাকা চাইলে সে আমাকে আগেই টাকা দিয়েছে বলে দাবি করেন। এরপর সে আমার সাথে খুব খারাপ ব্যবহার শুরু করেন। একপর্যায়ে আমার দোকানের ভিতর ঢুকে আমাকে মারধর শুরু করেন। পরে মেম্বারসহ আরও ৮-১০ জন এসে আমাকে আবারও মারধর করেন এবং আমার কাছে নগদ ৫৫ হাজার টাকা এবং ২০ কেজি জিরা নিয়ে যান।

এ বিষয়ে মেম্বার আব্দুস সালাম বলেন, আমি মারধর করিনি। আমার ছেলের সাথে ওই দোকানদারের ঝামেলা হয়েছিল। আমি সেখানে গিয়েছিলাম বিষয়টি মীমাংসা করার জন্য।

পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, এ বিষয়ে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জি/আর

সর্বশেষ - রাজশাহীর খবর