পুঠিয়ায় গৃহবধূর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার, স্বামী গ্রেপ্তার

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধি:

রাজশাহীর পুঠিয়ায় যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে নিজাম উদ্দীনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার উপজেলার জিউপাড়া ইউনিয়নের ডাঙাপাড়া গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। এদিন সকালে স্বামীর বাড়ি থেকে তাঁর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতের মা মাসুদা বেগম বলেন, ‘গত ৮ বছর আগে নিজামের সঙ্গে মেয়েকে বিয়ে দিই। বিয়ের সময় নগদ এক লাখ টাকা যৌতুক দেওয়ার কথা ছিল। পরিবার অসচ্ছলতার কারণে বাকি ২০ হাজার টাকা দিতে পারিনি। এই টাকার জন্য নিজাম প্রায় আমার মেয়েকে মারধর করত। দুই সপ্তাহ আগেও তাকে মারধর করে বাবার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। দুই দিন আগে আবার ফিরিয়ে নিয়ে যায়।’

মাসুদা বেগম আরও বলেন, ‘যৌতুকের টাকার জন্য আমার মেয়েকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করেছে। এরপর লাশের গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার নাটক সাজাতে ঘরের জানালার গ্রিলের সঙ্গে বেঁধে রাখে।’

নিহতের ভাই রানা হামিদ বলেন, ‘বোনের স্বামী নিজাম ও পরিবারের লোকজন মিলে পূর্বপরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছে। নিজাম ও তার মা-বাবাকে আসামি করে থানায় হত্যা মামলা করেছি।’

পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহরাওয়ার্দী হোসেন বলেন, গৃহবধূর লাশ উদ্ধারের পর ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বাকিরা পলাতক। তাঁদেরও গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

এস/আই