পুঠিয়ায় অগ্নিকাণ্ডে সর্বশান্ত দিনমজুর রাজ্জাক

 পুঠিয়া প্রতিনিধিঃ রাজশাহীর পুঠিয়ায় এক দিনমজুরের বাড়িতে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে ওই দিনমজুরের থাকার ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ঘরের ভেতরে থাকা জামা কাপড় আসবাবপত্র, নগদ টাকাসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ঘটনার পর তাকে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে আজ সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে উপজেলা সদর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ড পালোপাড়া গ্রামের সমেজের ছেলে দিনমজুর আঃ রাজ্জাকের বাড়িতে। দমকল বাহিনীর কর্মীদের ধারনা বিদুৎ এর সর্ট সার্কিট হয়ে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, দুপুরে রাজ্জাক ও তার স্ত্রী গরু ছাগলের খাবার সংগ্রহে বাড়ির বাইরে ছিলেন। হঠাৎ প্রতিবেশিরা তার বসত ঘরে আগুন দেখে চিৎকার শুরু করেন। আশেপাশের লোকজন এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে পুঠিয়া ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল সার্ভিসের কর্মকর্তাদের খবর দেন। পরে তারা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

পুঠিয়া ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল সার্ভিস কার্যালয়ের সাব অফিসার আনিসুর রহমান জানান, প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে বিদুৎ এর সর্ট সার্কিট হয়ে আগুনের সুত্রপাত হয়ে তা মুহুর্তেই পুরো ঘরে ছড়িয়ে পড়ে। তাৎক্ষণিক খবর পেয়ে দমকল বাহিনির সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনেন। তবে ততক্ষনে ঘরের প্রায় ৯০ শতাংশ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

আগুনে দুটি ছাগলের বাচ্চা পুড়ে মারা গেছে, এছাড়াও বসত ঘরের আসবাব পত্র, কাপড়, নগদ টাকা পুড়ে যাওয়াসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্ত্র পরিবারকে খাদ্য সহায়তা দিয়েছেন পুঠিয়া সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আশরাফ খান ঝন্টু।

তিনি বলেন, দিনমজুর আবদুর রাজ্জাক অন্যের জমিতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। তারা স্বামী স্ত্রী খরের বেড়া দিয়ে তৈরি ঘরে বসবাস করতেন অগ্নিকাণ্ডে তার থাকার ঘর পুড়ে গেছে। এছাড়াও বসত ঘরে থাকা সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। সবকিছু হাড়িয়ে সে এখন নিঃস্ব।

স/আ.মি

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, silkcitynews@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।