পবায় সড়ক দুর্ঘটনা: ব্যবসায়ীর মৃত্যুতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪, ৩জন একই পরিবারের

নিজস্ব প্রতিবেদক:

রাজশাহীর পবা উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ব্যবসায়ী মো. আক্তার (৩৫) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। রোববার (১৫ মে) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে তিনি মারা যান। আক্তার রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

এর আগে, সকালে দুই মোটরসাইকেল ও ট্রাক্টরের ত্রিমুখী সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই আক্তারের চার বছর বয়সী মেয়ে মরিয়ম জান্নাত (৪) ও নওগাঁর মান্দা উপজেলা যুবদলের সহ-সভাপতি আবদুল মান্নান (৪৮) নিহত হন। ঘটনাস্থল থেকে আক্তার ও তাঁর স্ত্রী বিথি খাতুনকে (৩৩) উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক বিথিকে মৃত ঘোষণা করেন।

পুলিশ জানিয়েছে, আক্তার, তার মেয়ে ও স্ত্রীকে মোটরসাইকেলে চড়ে গ্রামের বাড়ি নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার চণ্ডিপুর থেকে রাজশাহী শহরে আসছিলেন। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাজশাহী-নওগাঁ মহাসড়কে রাজশাহীর পবা উপজেলার নওহাটা এলাকায় প্রথমে আবদুল মান্নানের মোটরসাইকেলের সঙ্গে আক্তারের মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়। এরপর একটি ট্রাক্টর এসে দুই মোটরসাইকেলকেই চাপা দেয়। এতে একই পরিবারের তিনজনসহ মোটরসাইকেল দুটির চার আরোহীর সবাই মারা যান।

পবা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফরিদ হোসেন জানান, দুর্ঘটনার পর চালক তার ট্রাক্টর ফেলে পালিয়েছেন। ট্রাক্টরটি জব্দ করা হয়েছে। এ ছাড়া দুর্ঘটনাকবলিত মোটরসাইকেল দুটিও থানায় নেওয়া হয়েছে। হাসপাতাল থেকে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা করা হবে বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।