নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে সংকটের ভুক্তভোগী হবেন প্রধানমন্ত্রী: তৈমূর

তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব তৈমূর আলম খন্দকার বলেছেন, ‘আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক না হলে যে জাতীয় সংকট সৃষ্টি হবে, সেই সংকটের ভুক্তভোগী হবেন প্রধানমন্ত্রী।’

বৃহস্পতিবার (৩০ নভেম্বর) সকালে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে ঢাকা-৮ আসনের প্রার্থীকে সঙ্গে নিয়ে মনোনয়ন ফরম দাখিল শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এসময় তৈমূর আলম বলেন, তৃণমূল বিএনপি থেকে যাদের মনোনয়ন দিয়েছি তাদের মধ্য থেকে ঢাকা-৮ আসনে আমাদের মনোনীত প্রার্থী কে এম আবু হানিফ হৃদয়ের পক্ষে মনোনয়ন ফরম দাখিল করা হয়েছে। পাশাপাশি বাকি আসনে আজ আমাদের প্রার্থীরা মনোনয়ন ফরম দাখিল করবেন।

তিনি প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জাতির কাছে অঙ্গীকার করেছেন এবার নির্বাচন সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক হবে। কিন্তু আমরা গতকালই দেখেছি সরকার দলীয় প্রার্থীরা নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করেছেন। তারা বড় বড় শোডাউন করে মনোনয়ন দাখিল করছেন।’

অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘এক প্রার্থী অস্ত্র প্রদর্শন করে মনোনয়ন ফরম দাখিল করেছেন। সেসব ছবি গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে। এসব ছবি আমি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পাঠাবো। প্রধানমন্ত্রী যে অঙ্গীকার করেছেন আমি আশা করবো তিনি সেই অঙ্গীকার রক্ষা করতে সক্ষম হবেন।’

নারায়ণগঞ্জ-১ এ তৈমুর আলম খন্দকার নৌকাকে পরাজিত করতে পারবেন কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কোনো ব্যক্তিকে শক্তিশালী মনে করি না। আবার ছোট করেও দেখি না। আমি আল্লাহকে সর্বময় ক্ষমতার অধিকারী বিশ্বাস করি। সুতরাং নির্বাচনে মন্ত্রী কোনো বিষয় নয়, বিষয় হলো জনগণ।

সরকারের সঙ্গে আপনারা নাকি আসন ভাগাভাগি করেছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘যারা এ ধরনের কথা বলছে তাদের তথ্য প্রমাণ নিয়ে হাজির হতে বলেন।’

নির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ না করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে কেন অভিযোগ করতে চান? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী জাতির কাছে অঙ্গীকার করেছেন। আর তার বিরোধী মতাদর্শের লোকজনকে রক্ষা করার দায়িত্বও তার। তাই আমি তার কাছে অভিযোগ জানাতে চাই।’

তৃণমূল বিএনপির মহাসচিব আরও বলেন, নির্বাচন যদি অবাধ ও সুষ্ঠু না হয় তাহলে জাতীয় সংকট সৃষ্টি হবে। আর এ সংকটের ভুক্তভোগী হবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।