নগরীর প্রথম ফ্লাইওভারের নিচে ব্লক বসানোর কাজ পরিদর্শনে মেয়র লিটন

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রাজশাহী মহানগরীর বুধপাড়া এলাকায় নির্মিত প্রথম ফ্লাইওভারের নিচে ব্লক বসানো এবং মনিচত্বর থেকে সদর হাসপাতাল পর্যন্ত সড়ক ফোরলেনে উন্নীতকরণ কাজ পরিদর্শন করেছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন।

সোমবার দুপুরে এসব কাজ পরিদর্শন করেন মেয়র। এ সময় মেয়র কাজের অগ্রগতিসহ সার্বিক বিষয়ে খোঁজখবর নেন ও তদারকি করেন।

১৮৯ কোটি ৩৪ লাখ ৫৯ হাজার টাকা ব্যয়ে রাজশাহী মহানগরীর রাজশাহী-নওগাঁ প্রধান সড়ক হতে মোহনপুর-রাজশাহী-নাটোর সড়ক পর্যন্ত পূর্ব-পশ্চিম সংযোগ সড়ক নির্মাণ (২য় সংশোধিত) প্রকল্পের আওতায় আলিফ লাম মীম ভাটার মোড় হতে ছোট বনগ্রাম, মেহেরচন্ডী, বুধপাড়া, মোহনপুর হয়ে চৌদ্দপায়া হয়ে বিহাস পর্যন্ত ৬ দশমিক ৭৯৩ কিলোমিটার ৪ লেন সংযোগ সড়ক নির্মাণ কাজ করা হচ্ছে। প্রকল্পটির আওতায় ফ্লাইওভার নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে। এখন ফ্লাইওভারের পাশে ব্লক বসানো ও সড়কের কিছু অংশের কার্পেটিং কাজ চলমান রয়েছে।

এছাড়া প্রকল্পের আওতায় সড়কের দুই পাশে ফুটপাথ, ১টি ব্রীজ, ৮টি কালভার্ট, আইল্যান্ড, ট্রাফিক কাঠামো ইত্যাদি নির্মাণ করা হয়েছে। স্বল্প সময়ের মধ্যে নির্মিত সড়কটি আনুষ্ঠানিকভাবে চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হবে। এই সড়কের কারণে মহানগরীর ক্রমবর্ধমান যানজট পরিস্থিতির উল্লেখযোগ্য উন্নতি সাধিত হচ্ছে। একই সাথে প্রকল্প এলাকায় আবাসনসহ আর্থ-সামাজিক অবকাঠামো উন্নয়ন শুরু হয়েছে।

প্রকল্পের কাজ পরিদর্শনকালে রাসিকের নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম মোর্শেদ, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান রিথিন এন্টারপ্রাইজের কর্ণধার তৌরিদ আল মাসুদ রনি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে মনিচত্বর থেকে সদর হাসপাতাল পর্যন্ত সড়ক প্রশস্তকরণ কাজ পরিদর্শন করেছেন মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন। ২ কোটি ৮১ লাখ ১০ হাজার ৮৪৮ টাকা ব্যয়ে মনিচত্বর থেকে সদর হাসপাতাল পর্যন্ত ফোরলেন সড়ক এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সীমানা প্রাচীর ও ফুটপাত নির্মাণ করা হচ্ছে। একইসময়ে নির্মাণ হচ্ছে ড্রেনও। প্রকল্পের কাজ আগামী ২০২১ সালের মার্চে শেষ হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, silkcitynews@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।