তানোরে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে করোনা রোগী, এলাকায় আতঙ্ক

নিউজ ডেস্ক

তানোর প্রতিনিধি:
করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ানোর অভিযোগ উঠেছে রাজশাহীর তানোর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের এক আয়া ও তার ছেলের বিরুদ্ধে। তারা পৌরএলাকার গোল্লাপাড়া হলদারপাড়ার স্থায়ী বাসিন্দা।


প্রশাসনের পক্ষ থেকে করোনা আক্রান্ত ওই মা-ছেলেকে নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে থাকার পরামর্শ দেয়ার পাশাপাশি তাদের বাড়ি লকডাউন করা হয়। কিন্তু প্রশাসনের সেই নির্দেশ অমান্য করে করোনা আক্রান্ত ওই মা-ছেলে বাহিরে ঘোরাফেরা করায় এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। সচেতন লোকজন তাদেরকে বাইরে বের হতে নিষেধ করায় তারা উল্টো তাদের ওপর চড়াও পর্যন্ত হচ্ছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. রোজিয়ারা খাতুন বলেন, ২৮ জুন আমাদের উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের আয়া শিউলী রানী (৪১) করোনা ভাইরাস নমুনা পরীক্ষার পর তার ছেলে মিঠনের (২৩) দুইদিন পরে করোনা ভাইরাস নমুনা পরীক্ষার রির্পোট পজেটিভ আসে। এরপর তাদেরকে তানোর পৌর সদরের গোল্লাপাড়া বাজার সংলগ্ন হলদারপাড়ায় নিজ বাসায় আইসোলেশনে থাকতে বলা হয়। পাশাপাশি ওই রাতেই প্রশাসনের পক্ষ থেকে এলাকায় মাইকিং করে তাদের বাড়ি লকডাউন করা হয়। লকডাউনের নির্দেশনা না মেনে ঘুরে বেড়ানোর ব্যাপারে তাদের মা-ছেলেকে জিজ্ঞাসা করা হলে তারা অস্বীকার করেছেন।

কিন্তু স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, শিউলী ও তার ছেলে মিঠন লকডাউনের নির্দেশ না মেনে গত কয়েকদিন ধরে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। তারা গোল্লপাড়া হাট ও তানোর বাজারের বিভিন্ন মার্কেটে গিয়ে কেনাকাটাসহ আর্থিক লেনদেনও করছেন।

তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত দায়িত্ব) আলমগীর হোসেন জানান, করোনায় আক্রান্ত হাসপাতালের আয়া শিউলি ও তার ছেলে মিঠনের বাড়ি লকডাউন করা হয়েছে। এখন তারা যদি লক ডাউনের শর্ত ভঙ্গ করে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ান তা হলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

স/অ

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।