তানোরে তৈরি হবে ‘বঙ্গবন্ধু মডেল ভিলেজ’ থাকবে শহরের সব সুবিধা

টিপু সুলতান, তানোর :
রাজশাহীর তানোরে তৈরি হবে ‘বঙ্গবন্ধু মডেল ভিলেজ’। থাকবে শহরের সব সুবিধা। গ্রামের আয় বৃদ্ধি, কর্মসংস্থান সৃষ্টি, অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে উন্নত গ্রামীণ জীবনযাপনের সুযোগ এবং গ্রাম থেকে শহরমুখী স্রোত হ্রাস করতে ‘বঙ্গবন্ধু মডেল (ভিলেজ) গ্রাম’ প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

এ প্রকল্পের আওতায় দেশের ১০টি গ্রামের মানুষ শহরের সব সুযোগ-সুবিধা পাবেন। এই ১০টির তালিকায় রাজশাহী বিভাগের একই জেলার তানোর উপজেলায় হবে এই একটি গ্রাম।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে তার প্রতি সর্বোচ্চ সম্মান প্রদর্শনের অংশ হিসেবে সমবায় অধিদফতর বঙ্গবন্ধুর সমবায় গ্রাম ধারণা ও বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারের বিশেষ অঙ্গীকার ‘আমার গ্রাম-আমার শহর’ ধারণায় গ্রামের বৈশিষ্ট্য সমুন্নত রেখে ‘বঙ্গবন্ধু মডেল ভিলেজ’ প্রকল্পের প্রস্তাবনা তৈরি করেছে।

এর মাধ্যমে গ্রামের বৈশিষ্ট্য সমুন্নত রেখে গ্রামীণ সম্পদের সুষ্ঠু ও সুষম ব্যবহার নিশ্চিত করা, গ্রামীণ কর্মসংস্থান সৃষ্টি, কৃষির আধুনিকায়ন ও যান্ত্রিকী করণের মাধ্যমে উৎপাদন বৃদ্ধি, জৈব জ্বালানির ব্যবহার, যোগাযোগ ও বাজার অবকাঠামো সৃষ্টি, স্বাস্থ্য-শিক্ষার মানোন্নয়নের লক্ষ্যে কমিউনিটির সচেতনতা বৃদ্ধি, তথ্য প্রযুক্তিগত অবকাঠামো সৃষ্টির মাধ্যমে সব সেবা সহজলভ্য করা হবে।

দেশের ১০ জেলার ১০ উপজেলার ১০ গ্রামের গড়ে পাঁচ হাজার জন করে মোট ৫০ হাজার মানুষ প্রকল্পটির উপকারভোগী হবেন। এই ১০টির তালিকায় রয়েছে রাজশাহী বিভাগের একই জেলার তানোর উপজেলা।

এ নিয়ে তানোর উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুশান্ত কুমার মাহাতো বলেন, ‘মুজিব শতবর্ষ বর্তমান সরকারের নির্বাচনী ইশতেহারের বিশেষ অঙ্গিকার ‘আমার গ্রাম আমার শহর’ ধারণায় গ্রামের বৈশিষ্ট্য সমুন্নত রেখে ‘বঙ্গবন্ধু মডেল ভিলেজ’ প্রকল্পে প্রস্তাবনা তৈরি করেছে। বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উদ্বুদ্ধকরণের মাধ্যমে সামাজিক সংহতি রক্ষায় হবে এ গ্রামের মূল লক্ষ্য।

আমি প্রাথমিক ভাবে ধরে রেখেছি তালন্দ ইউনিয়নের মোহর গ্রাম অথবা কামারগাঁ। কাগজপত্র হাতে পেলে কাজ শুরু হবে। প্রধানমন্ত্রী পাইলট প্রজেক্টে তানোর উপজেলাকে গুরুত্ব দেওয়া আমার উপজেলা প্রশাসন, জনপ্রতিনিধিসহ সর্বস্তরের তানোরবাসী সকলেই শেখ হাসিনা প্রতি চিরকৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।

 

 

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।