তানোরের মাটিতে হরেক রকমের বিদেশী ফল

নিউজ ডেস্ক

টিপু সুলতান, তানোর:


রাজশাহীর তানোরে বিদেশী ফলের বাগান করে সবাইকে চমকে দিয়েছেন নোয়াখালি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত ডক্টর সুবোধ কুমার। তার বাগানের বিদেশী ফলের গাছ ও ফল দেখতে অনেকেই আসছেন তার বাগান বাড়িতে। বর্তমানে বাগানে জাপানের পিচফলে ছেয়েচে তার বাগান।

তানোর পৌর এলাকার নিজ গ্রাম আকচায় নিজস্ব ৩ বিঘা জমিতে তিনি গড়ে তুলেছেন বিদেশী এসব ফল গাছের বাগান। অপর দিকে বাড়ির ছাদ জুড়েও শোভা পাচ্ছে দেশি ও বিদেশী ফুল ও ফলের। ধান, গম ও আলু প্রধান খ্যাত তানোর উপজেলার মাটিতে বিদেশী ফুল ও ফলগাছ চাষ করে সম্ভাবনায় দার খুলে দিয়েছেন ডক্টর সুবোধ কুমার সরকার এমনই মন্তব্য করছেন এলাকাবাসী।

তিনি প্রায় ১২ বছরেরও বেশী সময় ধরে বনজ, ঔষধি ও ফলজ গাছ রোপন করে গড়ে তুছেলেন বাগান বাড়ি। আকচা গ্রামে ডক্টর সুবোধ কুমার সরকারের বাগানে গিয়ে দেখা গেছে, জাপানের পিচফল, ব্রাজিলের চেরী, থাইল্যান্ডের পালামার আম, দার্জিলিং লাল কলমা, তুরস্কের খেজুর, অ্যাভোগ্রেডো, নাসপাতি, আংগুরসহ নানান ফলের গাছ। বিদেশি ফলের পাশাপাশি বাগানজুড়ে দেশীফলও রয়েছে তার বাগানে।

এর মধ্যে রয়েছে রংপুরের হাড়িভাঙ্গা আম, মালটা, জামরুল, লিচু, পেঁয়ারা ও তিন প্রজাতির জাম। রয়েছে মসলার গাছ লং, দারুচিনি, তেজপাড়া, এলাচ। সেই সাথে ঔষধি গাছ শ্বেতচন্দন, রক্তচন্দন, হরতকি, বহেড়া, তুলশীসহ বিভিন্ন প্রজাতীর ফল ফুল ও ঔষুধী গাছ।

নোয়াখালি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে কমর্রত ডক্টর সুবোধ কুমার বলেন, আমার বাগানে ৩ বছর আগে ঢাকা থেকে পিচফলের গাছ এনে লাগায় । গত বছর অল্প সংখ্যক ধরলেও এবার গাছ জুড়ে পিচফল ধরেছে ব্যাপক। এর মধ্যে অনেক পিচফল গাছে পেকে রয়েছে, আপেলের মতো অনেকটা এই ফল, কিন্তু আপেলের চেয়েও নরম, মিষ্টি ও রসালো এবং স্বাদ আর গন্ধও দারুণ। এই করোনার সময়ে সবাইকে পুষ্টিজাতীয় ফল খাওযা প্রয়োজন।

তিনি আরো বলেন, ব্রাজিলের চেরি, থাইল্যান্ডের পালমার আম, দার্জিলিং কমলা এবার অনেক ধরেছে। বরেন্দ্র’র মাটিতে বিদেশী ফল ব্যাপক ভাবে হওয়া সম্ভবনা রয়েছে, এই বাগানই তার প্রমান।

এ অঞ্চলের মাটিতে বানিজ্যিক ভাবে এসব বিদেশী ফলের চাষ করা হলে বিদেশ থেকে ফল আমদানী করার প্রয়োজন হবে না। তার বাগানে এসে অনেকেই উৎসাহিত হচ্ছেন বিদেশী ফল গাছ লাগানোর জন্য।

তানোর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামিমুল ইসলাম বলেন, সুবোধ কুমার সরকারের বাগানটি প্রসংশনিয়। বরেন্দ্রের মাটিতে পিচ ফল হওয়া সম্ভব। সুবোধ কুমারের মত বিদেশীফল রোপনের জন্য এলাকার সচেতন ব্যক্তিদের এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানান।

স/অ

আরো পড়ুন …

তানোরে শিবনদীর পানি বৃদ্ধির ভয়ে আধা-পাকা ধান কাটছে কৃষকরা

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।