ট্রাম্পের বাধায় মুসলিম চিকিৎসকরা যুক্তরাষ্ট্রে কম যাচ্ছেন

নিউজ ডেস্ক

মুসলিম-সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশগুলো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসক হতে আসা মেডিকেল স্নাতকদের সংখ্যা মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনের অধীন ১৫ শতাংশ কমিয়ে আনা হয়েছে।

এতে মার্কিন চিকিৎসকদের ঘাটতিকে আরও গুরুতর করে তুলেছে। এক জরিপের বরাতে বার্তা সংস্থা এএফপি এমন খবর দিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে কর্মরত চিকিৎসকরা আন্তর্জাতিক মেডিকেল স্নাতকদের এক তৃতীয়াংশের প্রতিনিধিত্ব করছে। যুক্তরাষ্ট্রে চিকিৎসা সেবা দিতে তাদের বেশ কয়েকটি লাইসেন্সিং পরীক্ষায় অংশ নিতে হয়।

এছাড়া তাদের দুই থেকে তিন বছরের একটি প্রশিক্ষণও শেষ করতে হয়।

২০১৯ সালে যুক্তরাষ্ট্রের চিকিৎসক কর্মশক্তির সাড়ে চার শতাংশ পূর্ণ হয়েছিল মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশের নাগরিকদের দিয়ে। যাদের অধিকাংশই এসেছিল পাকিস্তান, মিসর ও ইরান থেকে।

ইসলামি দেশগুলো থেকে স্নাতকদের মার্কিন সনদপত্রের জন্য আবেদন ২০০৯ থেকে ২০১৫ সালে বেড়ে গিয়েছিল। যেটা সর্বোচ্চ চার হাজার ২৪৪ জন ছিল।

এরপর ২০১৮ সালে সেটা কমে তিন হাজার ৬০৪ জনে নেমে আসে। যা আগের তুলনায় ১৫ শতাংশ কম বলে জরিপে দাবি করা হয়েছে।

২০১৬ সালেও মুসলিম মেডিকেল স্নাতকদের আবেদন সংখ্যা কমেছিল। তখন ট্রাম্প প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হলেও বারাক ওবামা ক্ষমতায় ছিলেন।

পরবর্তীতে ২০১৭ ও ২০১৮ সালে তা আরও কমে আসে।

জার্নাল অব দ্য মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনে এই গবেষণা প্রকাশিত হয়েছে। এডুকেশনাল ফরেন মেডিকেল গ্র্যাজুয়েটসের ভাইস প্রেসিডেন্ট বৌলেট এই গবেষণার নেতৃত্ব দেন।

তিনি ও তার সহকর্মীরা বলেন, মুসলিম-সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশগুলোর ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞায় আন্তর্জাতিক মেডিকেল স্নাতকদের যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমানের ক্ষেত্রে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

 

সুত্রঃ যুগান্তর

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।