জয়পুরহাটে বাসে মৃত্যু, করোনা সন্দেহে ছেলের মরদেহসহ মা’কে নামিয়ে দিল রাস্তায় (ভিডিও)

নিউজ ডেস্ক
  • 210
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক, জয়পুরহাট:
জয়পুরহাটে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা আহাদ পরিবহন নামে একটি যাত্রীবাহী বাস যোগে বাড়ি ফেরার পথে বাসের মধ্যে ছেলের মৃত্যু হলে করোনা সন্দেহে ছেলের মরদেহ সহ মাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। আজ ভোরে জয়পুরহাট-বগুড়া সড়কের হিচমি নামক স্থানে এই মরদেহ নামানো হয়।

মৃত ব্যক্তি হলেন মিজানুর রহমান (৫০)। সে নওগাঁ জেলার ধামুরইরহাট উপজেলার জাহানপুর গ্রামের আতোয়ার হোসেনের ছেলে। ছেলের মরদেহের পাশে মা বসে থাকলেও পাশে আসেনি কেউ।

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে দুর থেকে মা ও ছেলেকে পাহারা দেন। পরে করোনা সন্দেহে খবর পেয়ে জয়পুরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন চন্দ্র রায় এবং স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা সেখানে গিয়ে মৃত ব্যক্তির নমুনা সংগ্রহ করেছেন।

পুলিশ জানায়, আজ মঙ্গলবার ভোর রাতে ঢাকা হতে আহাদ পরিবহন নামে একটি যাত্রীবাহী বাসে নওগাঁ জেলার ধামইরহাটের অসুস্থ্য মিজানুর রহমান তার মাকে নিয়ে বাড়ির উদ্যেশে রওনা দেয়। পথিমধ্যে মিজানুর রহমান হঠাৎ স্বাসকষ্টে মারা গেলে মঙ্গলবার ভোর রাত তিনটার দিকে জয়পুরহাট-বগুড়া আঞ্চলিক মহাসড়কের সদর উপজেলার হিচমী নামক স্থানে মরদেহসহ মাকে নামিয়ে দিয়ে বাসটি অন্যান্য যাত্রীদেরকে নিয়ে চলে যায়। এসময় ছেলের মরদেহ নিয়ে মায়ের আহাজারীতে এলকাবাসী আসলেও কাছে ভিড়েনি কেউ। পুলিশ এসে মরদেহ পাহারা দেন এবং স্বাস্থ্য বিভাগ ও প্রশাসনকে খবর দেন। স্বাস্থ্য বিভাগ এসে নমুনা সংগ্রহ ও প্রশাসন এসে দাফনের প্রক্রিয়া করছে। মায়ের আবদার ছেলেটির মরদেহ গ্রামে নিয়ে দাফন করবে।

জয়পুরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন চন্দ্র রায় সিল্কসিটিনিউজকে জানান, মৃত ব্যক্তি ঢাকায় শ্রমিকের কাজ করা স্ত্রীর সাথে দেখা করে বাড়ি ফিরছিলেন। সে দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ্য ছিলেন। গতকাল রাতে তার মা সোহাগী বেগম তাকে নিয়ে গ্রামের বাড়ি আসার সময় রাস্তায় তার মৃত্যু হয়। এসময় বাসের অন্য যাত্রীরা করোনা সন্দেহে মাসহ তাদের বাস থেকে নামিয়ে দেয়।

মৃতের পরিবারের সদস্যা মরদেহ নিয়ে নিজ গ্রামে দাফনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানা গেছে।

ভিডিও …

স/অ

আরো পড়ুন …

সামাজিক দূরত্ব না মেনে জয়পুরহাটে শুরু হয়েছে ঈদের কেনাকাটা

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।