জেলায় জেলায় করোনা পরীক্ষাগার চালুর দাবিতে জয়পুরহাটে মানববন্ধন

নিউজ ডেস্ক
  • 48
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক, জয়পুরহাট:
করোনাভাইরাসের এই পরিস্থিতিতে ‘জাতীয় দুর্যোগ’ ঘোষণা দিয়ে জেলায় জেলায় করোনা ভাইরাসের পরীক্ষাগার স্থাপনের দাবি জানিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। আজ শুক্রবার সকাল ১১টায় জয়পুরহাট শহরের আমতলীতে বাম গণতান্ত্রিক জোটের আয়োজনে ঘন্টাব্যাপি চলা এক মানববন্ধন কর্মসূচিতে এ দাবি জানান জোটের নেতারা।

মানবন্ধনে বাম জোটের সমন্বয়ক এম এ রশিদ বলেন, বর্তমান সংকটকে জাতীয় দুর্যোগ হিসেবে ঘোষণা করে জেলায় জেলায় করোনা ভাইরাস বিশেষায়িত পরীক্ষাগার ও চিকিৎসার জন্য আত্মীয় বিশেষায়িত হাসপাতাল স্থাপন করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, সরকার ঘোষিত লকডাউনের ফলে সকল শ্রমজীবী মানুষেরা কর্মহীন হয়ে পড়েছে। খাদ্য ও আর্থিক সংকটে পড়েছে বহু পরিবার। তারা বর্তমানে দিশেহারা হয়ে পড়েছে। এজন্য কর্মহীন পরিবারগুলোকে রক্ষার জন্য বিনামূল্যে খাদ্য সরবরাহসহ মধ্যবিত্ত পরিবারগুলোর জন্য মহল্লায় মহল্লায়-গ্রামে গ্রামে রেশনিং ব্যবস্থা চালুর দাবি জানান তিনি।

এসময় বাসদ আহ্বায়ক ওয়াজেদ পারভেজ বলেন, মহামারী এই করোনা ভাইরাসের সময় দেশের চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মীরা আমাদের একমাত্র ভরসা সেজন্য তাদের পর্যাপ্ত সুরক্ষাসরঞ্জাম সরবরাহ নিশ্চিত করতে হবে। দেশে বর্তমানে বোরো ধান কাটা ও মাড়াইয়ের সময় এসেছে সেজন্য এক এলাকার শ্রমিক যেন অন্য এলাকায় যেতে পারে তার কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। তাঁরসাথে কৃষক তার উৎপাদিত ধান সরকারঘোষিত দরে যেন বিক্রি করতে পারে তার কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

সমাবেশে বাম জোটের বক্তারা বলেন, শ্রমজীবী মেহনতী মানুষের ঘরে ঘরে খাবার ও নগদ অর্থ প্রদান এবং ত্রাণের স্বপ্লতা, ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম-দুর্নীতি ও দলীয়করণের অভিযোগ তুলে এসব বন্ধ করার দাবিও জানান নেতৃবৃন্দ।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক ও জেলা সিপিবি’র সাধারন সম্পাদক এম এ রশিদ, বাসদের আহ্বায়ক ওয়াজেদ পারভেজ, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সমন্বয়ক মাহমুদুল করিম, বাসদ (মার্কসবাদীর) জেলা সমন্বয়ক ওবায়দুল্লাহ মুসা, ছাত্র ইউনিয়ন সভাপতি রিফাত আমিন রিয়ন প্রমুখ।

স/অ

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।