ছেলের হাতের মার খেয়ে অপমাণে প্রাণ দিলেন বাবা

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ছেলের হাতের মার খেয়ে সেই লজ্জা আর অপমাণ সহ্য করতে না পেরে আত্মহত্যা করেছেন বৃদ্ধ বাবা।  বুধবার  সকালে রাজশাহীর বাঘা উপজেলার সদর পৌরসভার বাজুবাঘা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

 

নিহতের নাম সেকেন্দার আলী (৬৫)। বাঘা থানা পুলিশ নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে বিকেলে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। সুরতহাল রিপোর্টে তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন পেয়েছে পুলিশ।

 

পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে রাজশাহীর বাঘা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলী মাহমুদ জানান, মঙ্গলবার (২৮ জুন) তারাবির নামাজ পড়ে বাড়িতে যান সেকেন্দার আলী। কিন্তু রাতের খাবার খেতে দেওয়া নিয়ে তার স্ত্রী ঝগড়া শুরু করেন। এ সময় মায়ের পক্ষ নিয়ে ছেলে টুটুল আলী বাবাকে মারধর করে খাবারের প্লেট কেড়ে নেয়। এ ঘটনায় তিনি অভিমান করে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান।

 

বুধবার  সকালে গ্রামের বাদশা নামের এক ব্যক্তি মাঠে যাওয়ার সময় সেকেন্দারের বাড়ি থেকে ৫০০ গজ দূরে আমগাছের সঙ্গে তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পান। এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে যান। পরে তারা থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করে।

 

ওসি আলী মাহমুদ জানান, সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী সময় মৃতদেহের শরীরে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। কিন্তু ঘটনার পর তার ছেলে টুটুল তার বাবাকে মারধরের কথা অস্বীকার করেছেন।

 

তবে এ ব্যাপারে থানায় অপমৃত্যুর (ইউডি) মামলা হয়েছে বলে জানান ওসি।

স/মি

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।