চাঁপাইনবাবগঞ্জে পুলিশ রিমাণ্ডে মৃত্যু, বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে হাইকোর্টে রিট

নিউজ ডেস্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক,চাঁপাইনবাবগঞ্জ:

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর মডেল থানায় পুলিশ রিমান্ডে আফসার আলী (৩৫) নামের এক আসামির মৃত্যুর ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে রিট আবেদন করা হয়েছে হাইকোর্টে।

আবেদনে মৃত মাদক মামলার সে আসামীর মৃত্যুর ঘটনায় জড়িত পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। সেসাথে এ নিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনও সংযুক্ত করা হয়েছে।

মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্রের (আসক) পক্ষে অ্যাডভোকেট ইয়াদিয়া জামান ও অ্যাডভোকেট শাহীনুজ্জামান শাহীন রবিবার (১২ জুলাই) এ রিট আবেদন দাখিল করেন।

এতে স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশ মহাপরিদর্শক, চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার, সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সহ সংশ্লিষ্টদের বিবাদী করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে এ্যাডভোকেট শাহীনুজ্জামান শাহীনের সাথে মামলার বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্রের (আসক) পক্ষে রবিবার দুপুরে মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। বিচারপতি জে বি এম হাসানের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চে এ রিট আবেদনটির ওপর শুনানি হতে পারে বলেও তিনি জানান।

প্রসঙ্গত, গত রবিবার (৫ জুলাই) সদর উপজেলার সুন্দরপুর বাগডাঙ্গা শুকনাপাড়া এলাকা থেকে এক কেজি ১৯৫ গ্রাম হেরোইনসহ পৌর এলাকার টিকরামপুর মধ্যপাড়ার মহসীন আলীর ছেলে আফসার আলীকে আটক করে র‌্যাব। সদর থানায় মামলার পর ৬ জুলাই একদিনের রিমাণ্ডে এনে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছিল পুলিশ। ওইদিন রাতে কতব্যরত পুলিশ সদস্যরা সিসি ক্যামেরায় আসামীর আত্মহত্যার চেষ্টা চালানোর ছবি দেখে দ্রুত আসামীকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে এ ঘটনার পর চাঁপাইনবাবগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জানান , গলায় তার পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে আসামী। তবে চিকিৎসক বলেছেন, হাসপাতালে আসার কিছুক্ষণ পর বুকের ব্যথায় মারা গেছেন আফসার।

অন্যদিকে মৃতের স্ত্রীর দাবী , আফসারকে খুন করা হয়েছে।

স/অ

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।