গাইবান্ধায় মিথ্যা মামলা করায় বাদীকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক:
মিথ্যা ও বিরক্তিকর মামলা করায় বাদীকে ২০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ প্রদানের আদেশ দিয়েছেন গাইবান্ধার একটি আদালত। বাদীর মামলা খারিজ করে দিয়ে ক্ষতিপূরণের অর্থ বিবাদীকে প্রদান করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার বিকেলে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের বিচারক মো: জুনাইদ এই আদেশ দিয়েছেন।
আদালত সূত্রে জানা যায়, ২১৯/০৫ নম্বর অন্য প্রকার মামলায় বাদী মো: নেছাব উদ্দিনকে ৩০ দিনের মধ্যে ক্ষতিপূরণের অর্থ বিবাদী নছিম উদ্দিনকে প্রদানের নির্দেশ দেন। বাদী ক্ষতিপূরণের অর্থ স্বেচ্ছায় প্রদান না করলে আদালতের মাধ্যমে বিবাদী আদায় করে নিতে পারবেন বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়েছে।
আদালত সূত্রে আরো জানা যায়, বাদীর কৃষক পিতা নিজ ও প্রাপ্তবয়স্ক সন্তানদের আয়ে কিছু জমি কিনেছিলেন ১৯৭০ সালে। কিন্তু পিতার বড় ছেলে বাদী মো: নেছাব উদ্দিন বাবা ও ভাইবোন দের ফাঁকি দিয়ে সম্পত্তির কবলা নিজের নামে করে নেন। পরবর্তীতে এই প্রতারনার বিষয়টি ফাঁস হলে নেছাব উদ্দিন সবার চাপের মুখে সম্পত্তি তার পিতার বরাবর কবলা দলিলমূলে ফিরিয়ে দেয় ১৯৭০ সালে। এরপর নেছাব উদ্দিন তার পিতার মৃত্যুর পর সম্পত্তির বাটোয়ারাসহ ১৯৭০ সালের দলিল বাতিলের মামলা করেন। আদালত ১৯৭০ সালের দলিল বহাল রেখে ওয়ারিশদের মধ্যে সম্পত্তি বন্টনের আদেশ দেন। পরে এই মামলার রায়ের বিষয় গোপণ করে বাদী নেছাব উদ্দিন আবারো দলিল বাতিলের মামলা করায় আদালত বৃ্হস্পতিবার বিকেলে এই মামলা খারিজ করে বাদীকে ২০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণের নির্দেশ দেন।
সুন্দরগঞ্জ সিনিয়র সহকারী জজ আদালতের বেঞ্চ সহকারী মো: রেজাউল করিম এই আদেশের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, মিথ্যা মামলায় এভাবে ক্ষতিপূরণের আদেশ দিলে মিথ্যা মামলা করার সাহস পাবেনা কেউ। অন্যদিকে মিথ্যা মামলা করে বিবাদীর আর্থিক ক্ষতি হওয়ায় বিবাদীরও কিছুটা আর্থিক ক্ষতি লাঘব হবে।
স/আর
শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।