কিশোরকে বিকৃত যৌনচারে বাধ্য করতেন রাজশাহীর যুবলীগ নেতা সুমন

নিউজ ডেস্ক
নিজস্ব প্রতিবেদক:
কিশোরকে বিকৃত যৌনচারে বাধ্য করতেন রাজশাহী মহানগর যুবলীগের বহিস্কৃৃত যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুল হক সুমন। ভুক্তভোগী ওই কিশোরকে প্রথম দফায় বাড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে নির্যাতনের পর তাকে বিকৃত যৌনচারে বাধ্য করেন সুমন। এরপর আরো কয়েক দফা একই ঘটনা ঘটনাে হয় ওই কিশোরের সঙ্গে। যৌনাচারের
ভিডিওটি ভাইরাল হওয়ার পরেও ওই কিশোরকে মারার জন্য সুমন খুঁজতে থাকে। পালাতে গিয়ে সে জখমের শিকারো হয়। সুমনের ভয়ে বর্তমানে ওই কিশোর আত্মগোপন করে আছে বলেও দাবি করে সে।
অপর এক ভিডিওতে এই দাবি করে ভুক্তভোগী কিশোরটি। গতকাল সিল্কসিটিনিউজের কাছে সে ভিডিওটি পাঠানো হয়।
এদিকে সুমনের যৌনচারের ভিডিও নিয়ে মসজিদের ইমামের মন্তব্যের জের ধরে নগরীর শিরোইল কলোনী মসজিদে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। গতকাল শুক্রবার জুমআর নামাজের সময় এ ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে আগে থেকেই অবস্থান নেয়া পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
ওই কিশোর অভিযোগ করে তাকে প্রথম দফায় সুমন তাকে তার বাড়িতে নিয়ে যায়। এরপর নির্যাতন করে বিকৃত যৌনচারে বাধ্য করে। শেষে বিষয়টি কাউকে না বলতে হুমকি দিয়ে কিছু টাকা হাতে ধরে দেয়। এভাবে আরো কয়েক দফা তার ওপর যৌন নির্যাতন করে সুমন। শেষে ষষ্ঠবারের মতো যৌনচারের ঘটনাটি ভিডিও ধারণ করে সোহাগ নামের এক যুবক। এরপর সোহাগকে ভয়ভিতি দেখাতে সুমন। ঘটনার পর সোহাগ এখনো নিখোঁজ। তবে ভিডিও ফাঁসের ঘটনার পর ওই কিশোরকেও পুনরায় ধরে নিয়ে গিয়ে নির্যাতনের চেষ্টা করে সুমন। তবে পালাতে গিয়ে কিশোরটা জখমের শিকার হয়। তারপর থেকে সে আত্মগোপন করে আছে সুমনের রোষানল থেবে বাঁচতে।
অন্যদিকে সুমনের কারণেই ভিডিও ধারনকারী সোহাগ নিখোঁজ হয়ে আছে বলে তার মা আকলিমা বেগম সুমনের বিরুদ্ধে চন্দ্রিমা থানায় লিখিত অভিযোগও করেছেন।
এদিকে শিরোইলের স্থানীয়রা বাসিন্দারা জানায়, শিরোইল কলোনী মসজিদের ইমাম মাইনুল ইসলাম আব্বাসি কয়দিন আগে যুবলীগের বহিষ্কৃত নেতা সুমনের বিকৃত যৌনচারে ভিডিওটি সম্পন্ন ভুয়া বলে দাবি করেন মুসল্লীদের কাছে।
মুসল্লীরা ইমামকে সুমনের এই অপকর্মের বিষয় নিয়ে আলোচনা না করার জন্য আহ্বান জানান। কিন্তু তার পরেও ইমাম মুসল্লীদের কাছে একই দাবি করেন। এ নিয়ে গতকাল শুক্রবার জুমআর নামাজের সময় উভয়পক্ষের মধ্যে মসজিদের ভিতরেই উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ নিয়ন্ত্রণ করে।
জানতে চাইলে নগরীর চন্দ্রিমা থানার ওসি হুমায়ন কবীর বলেন, মুসল্লীদের দু’পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়ায় পুলিশ গিয়ে নিয়ন্ত্রণ করে।
প্রসঙ্গত, এক কিশোরের সঙ্গে রাজশাহী মহানগর যুবলীগের বহিস্কৃত যুগ্ম-সম্পাদক তৌহিদুল হক সুমনের বিকৃত যৌনচারের ভিডিও গত ১৫ এপ্রিল ফাঁস হয়। এরপর গত ২০ এপ্রিল রাজশাহী মহানগর যুবলীগ থেকে সুমনকে বহিস্কার করা হয়। সঙ্গে কারণ দর্শাতে ১৫ দিনের সময় বেধে দেয়া হয়।
স/আর
শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।

Comments are closed.