উপজেলা পরিষদ নির্বাচন: রাণীনগরে জমে উঠেছে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা

সুকুমল কুমার প্রামানিক, রাণীনগর  প্রতিনিধি: আটটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত নওগাঁর রাণীনগর উপজেলা। আগামী ১০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হবে রাণীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন। আর এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জমে উঠেছে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা। উৎসবে পরিণত হয়েছে শহর থেকে শুরু করে গ্রামাঞ্চল গুলোতে। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত প্রার্থীরা ছুটছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। প্রতিদিনই নির্বাচনী এলাকার পাড়া-মহল্লায় চলছে মাইকিং ও প্রচার-প্রচারণা। আর পোষ্টার, ব্যানার, ফেস্টুনে ছেয়ে গেছে নির্বাচনী এলাকা। এতে করে প্রচার-প্রচারণায় সরগরম হয়ে উঠেছে এই উপজেলার জনপদ।

এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকার প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ দুলুর পক্ষে দলের নেতাকর্মীরা ও বিএনপি’র মনোনীত ধানের শীষের প্রার্থী মোসারব হোসেনের পক্ষে দলের নেতাকর্মীরা জোরেশোরে প্রচারণা করছেন। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন দুই প্রার্থী নিজেরাই ও তাদের লোকজন।

এছাড়া আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী মফিজ উদ্দিন প্রামানিক মটরসাইকেল মার্কা নিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। তবে তাকে মাঠে বেশি দেখা যাচ্ছে না। এই উপজেলায় প্রধান দু’টি রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপি। নৌকা ও ধানের শীষের প্রতীকের প্রচার-প্রচারণায় মুখর এই জনপদের অলিগলি। নির্বাচনী এলাকার সব জায়গাতেই বইছে নির্বাচনী আমেজ। তবে এ উপজেলায় নৌকার অবস্থান বেশ ভাল।

রাণীনগর উপজেলা পরিষদর চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে নৌকার প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ও উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুর রউফ দুলু, ধানের শীষের প্রতীক নিয়ে লড়ছেন বিএনপির মনোনীত প্রার্থী ও উপজেলা বিএনপি’র যুগ্ন আহ্বায়ক মোসারব হোসেন। এছাড়া আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মটরসাইকেল প্রতীক নিয়ে লড়ছেন আওয়ামী লীগ থেকে বহিস্কৃত নেতা মফিজ উদ্দিন প্রামানিক। এ উপজেলায় চলছে তিন প্রার্থীর লড়াই।

প্রার্থীদের পদচারনায় মুখোরিত হয়ে উঠেছে এ উপজেলার জনপদ। পোষ্টার, ব্যানার, ফেস্টুন ও বিভিন্ন সভা এবং মতবিনিময়ের মাধ্যমে ভোটাদের কাছে ভোট চেয়ে বেড়াচ্ছেন প্রার্থীরা নিজেই ও তাদের নেতাকর্মীরা। সেই সঙ্গে প্রত্যন্ত গ্রামের অভিমানী ও ত্যাগী নেতাকর্মীদের সাথে কুশলাদি বিনিময়, অসুস্থদের সাথে সাক্ষাৎ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। নির্বাচনের দিন যতই ঘনিয়ে আসছে এই উপজেলায় ভোটের আমেজ ততই বাড়ছে। রাণীনগর উপজেলায় মোট ভোটার ১ লক্ষ ৪৯ হাজার ৫৮৭ জন। পুরুষ ভোটার ৭৪ হাজার ৮৬৫ জন এবং মহিলা ভোটার ৭৪ হাজার ৭২২ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ৫৬ টি।

আসন্ন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন নিয়ে এলাকার সাধারণ, তরুণ ও নতুন ভোটারদের সাথে কথা বললে তারা বলেন, তথ্য ও প্রযুক্তি নির্ভর সেবা পেতে তারা বিশ্বাসী। যারা দুর্নীতি, অনিয়ম, মাদক ও সকল বৈষম্যহীন সমাজ গড়তে আগামী দিনের নেতৃত্ব দিবেন এলাকার উন্নয়ন করবেন ও যাকে তারা যোগ্য প্রার্থী হিসেবে মনে করবেন তাকেই তারা ভোট দিবেন বলে জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, রাণীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান (সাবেক) আনোয়ার হোসেন হেলাল পদত্যাগ করে গত ১৭ অক্টোবর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ উপ-নির্বাচনে অংশ নেয়। ফলে রাণীনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদটি শুন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

স/আ.মি

 

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, silkcitynews@gmail.com ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।