ইসরায়েলে গিয়ে হামাসের হামলাস্থল দেখলেন ইলন মাস্ক

সিল্কসিটি নিউজ ডেস্ক :
হেরজগের কার্যালয় এসব তথ্য নিশ্চিত করেছে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, সোমবার ইসরায়েল পৌঁছানোর পর দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে কিবুটজ ইলন মাস্ক ঘুরে দেখেন। গাজা সীমান্তের এ অঞ্চলে ফিলিস্তিনের মুক্তিকামী সংগঠন হামাস হামলা চালিয়েছিল। হামলায় প্রায় ধ্বংস হয়ে গিয়েছিল এলাকাটি।

সফরে এসে ইসরায়েলের অনুমোদন ছাড়া গাজায় স্যাটেলাইট ভিত্তিক ইন্টারনেট সেবা স্টারলিংকের সংযোগ দেবেন না বলে জানিয়েছেন ইলন মাস্ক। সোমবার ইসরায়েলের যোগাযোগ মন্ত্রীর বরাত দিয়ে এ বিষয়টি জানিয়েছে কাতার ভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরা।

যদিও এর আগে তিনি ‘স্বনামধন্য’ মানবিক সংস্থাগুলোকে গাজায় ইন্টারনেট সেবা দেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিলেন। প্রস্তাবটি দেওয়া হয়েছিল অক্টোবর মাসের শেষের দিকে।

সে সময় ইসরায়েলি যোগাযোগমন্ত্রী শ্লোমো কারহি হুমকি দিয়ে বলেছিলেন, মাস্ক এই উদ্যোগ নিলে ইসরায়েল স্টারলিংকের সঙ্গে সব ধরনের অংশীদারিত্ব বর্জন করবে। তিনি দাবি করেন, হামাসের যোদ্ধারা স্টারলিংকের সংযোগ ব্যবহার করে চলমান সংঘাতে সুবিধা আদায় করে নেবে।

তিনি বলেছিলেন, স্টারলিংকের স্যাটেলাইটগুলোকে ইসরায়েলে কার্যক্রম পরিচালনা করতে হলে দেশটির যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পেতে হবে। এর মধ্যে গাজা উপত্যকাও অন্তর্ভুক্ত।

সোমবার মাস্ক ইসরায়েল এলে তার মাইক্রোব্লগিং সাইট এক্সে স্ট্যাটাস পোস্ট করেন শ্লোমো। ইসরায়েলের অনুমোদন ছাড়া গাজায় স্যাটেলাইট ভিত্তিক ইন্টারনেট সেবা স্টারলিংকের সংযোগ দেওয়া হবে না- ইলন মাস্কের এমন সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান তিনি। পোস্টে তিনি লেখেন- ‘মূল সমস্যাটি বুঝতে পারার’ জন্য মাস্ককে অভিনন্দন।

এইচ/আর