সোমবার , ১০ জুন ২০২৪ | ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ ও দুর্নীতি
  3. অর্থ ও বাণিজ্য
  4. আইন আদালত
  5. আন্তর্জাতিক
  6. কৃষি
  7. খেলা
  8. চাকরি
  9. ছবিঘর
  10. জাতীয়
  11. তথ্যপ্রযুক্তি
  12. দুর্ঘটনা
  13. ধর্ম
  14. নারী
  15. নির্বাচিত খবর

আ.লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সব রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে: কাদের

Paris
জুন ১০, ২০২৪ ১০:২২ অপরাহ্ণ

সিল্কসিটি নিউজ ডেস্ক :

আসন্ন আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তীর অনুষ্ঠানে পক্ষ-প্রতিপক্ষ না দেখে সব নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলকে আমন্ত্রণ জানানো হবে বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (১০ জুন) দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে অবস্থিত আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর বিষয়ে নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা জানান।

এ সময় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী জাহাঙ্গীর কবির নানক, ঢাকা-৮ আসনের সংসদ সদস্য আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ঢাকা-৬ আসনের সংসদ সদস্য সাঈদ খোকন, ঢাকা- ১০ আসনের সংসদ সদস্য ফেরদৌস আহমেদ, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিলসহ অন্যান্য নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমাদের আজকের মিটিং দলের প্লাটিনাম জয়ন্তী নিয়ে। এ উপলক্ষেই আমরা এ সভা ডেকেছি। সবাই এসে আলাপ-আলোচনা করেছেন। তবে আমরা সাজসজ্জা, আলোকসজ্জা করবো না। আমাদের নেত্রীর নির্দেশ যে, এ কঠিন সময় আলোকসজ্জা বিষয়টা বাদ দেওয়ার জন্য।

তিনি বলেন, আমরা সারা দেশে ইউনিয়ন-ওয়ার্ড পর্যন্ত ৭৫ বছরের উৎসব উদযাপন করবো। এটিকে সর্বাঙ্গীণ সফল করার জন্য আমরা আমাদের এমপি সাহেব ও মেয়র সাহেবদের ডেকেছি। তারাও কথা বলেছেন। একটি সর্বাঙ্গীণ সুন্দর অনুষ্ঠানমালা দেশের জনগণকে দিতে আমরা প্রস্তুত হচ্ছি।

তিনি আরও বলেন, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আমরা ২১ তারিখ বিকেল ৩টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন থেকে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ পর্যন্ত র‌্যালি করবো। আর ২৩ তারিখ সকালে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে প্লাটিনাম জয়ন্তীর শুভ উদ্বোধন করবেন আমাদের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা। এরপর বিকেল ৩টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আলোচনা সভা হবে। সেই আলোচনার শুরুতে ছোট একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে। এছাড়া বিচ্ছিন্নভাবে বিভিন্ন অনুষ্ঠান হবে। ধানমন্ডির এমপি বলেছেন রবীন্দ্র সরোবরে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করবেন। উত্তরের মেয়র সাহেব বলেছেন, তিনিও একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করবেন হাতিরঝিলে। তারপরে পুরান ঢাকায় নৌকাবাইচ হবে। আওয়ামী লীগের জন্মস্থান রোজ গার্ডেনে আমরা একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করবো। এছাড়া ঢাকার সড়কে একটি সাইকেল র‌্যালি হবে। ওই সময় কোরবানির ঈদ থাকলেও আমাদের আয়োজনে কোনো ত্রুটি থাকবে না। আমাদের নেতাকর্মীরা সজাগ। অনেকে হয়তো বাড়ি যাবেন না। আয়োজনে অংশগ্রহণ করবেন।

দেশের বাইরে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কোনো অনুষ্ঠান করা হবে কিনা জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন সময় আমাদের হাতে খুব কম। তবে আমরা দলের পক্ষ থেকে বিভিন্ন দূতাবাসে নিযুক্ত বিদেশি কূটনীতিকদের আমন্ত্রণ জানাবো। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলকেও আমরা আমন্ত্রণ জানাবো। এটা আমাদের ঐতিহ্য। এখানে কে আমাদের প্রতিপক্ষ-পক্ষ সেটা আমরা দেখবো না। রাজনৈতিক হিসেবে নিবন্ধিত সব দলকে আমরা আমন্ত্রণ জানাবো।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শপথ অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী গেছেন, বিভিন্ন রাষ্ট্রপ্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন, এ সফরে নতুন কিছু আমরা পাবো কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী রোববার (০৮ জুন) রাতে শপথ গ্রহণ করেছেন। এত কম সময়ের মধ্যে বড় কিছুর আশা, সময় তো লাগে। কথাবার্তা বলতে হয়। তারপরও তাদের বৈঠক আছে, সেই বৈঠক থেকে কোনো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত এলে আপনারা (সাংবাদিক) জানতে পারবেন। আর প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরলে তিনি নিজেও সাংবাদিকদের সঙ্গে মিলিত হবে। সেখানে তিনি ভারত সফর সম্পর্কে বিস্তারিত বলবেন।

এ সময় ওবায়দুল কাদের দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, রোববার আমাদের মূল আলোচনা ছিল আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, প্লাটিনাম জয়ন্তী। এটি নিয়ে একটি শব্দও নাই পত্রিকায়। আপনারা (সাংবাদিক) চলে গেলেন আজিজ আর বেনজিরের বিষয়ে। এটা হওয়া উচিত নয়। আমরা আমাদের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীকে ফোকাসে রেখে কথা বলেছি। আপনারা (সাংবাদিক) ওখানে আজিজ আর বেনজীরকে বার বার ঢুকিয়ে দেন। এটা তো প্রথম না। আমি কিছু বললেই ওই দুইজন আসে। তারেক রহমানের বিরুদ্ধে কিছু বললে সেটা আসে না। তারেক রহমানের দুর্নীতি নিয়ে কথা বলি, সেটা পত্রিকার পাতায় পরদিন পাই না। খুব দুর্ভাগ্যজনক।

তিনি আরও বলেন, আমাদের সাংবাদিকতায় অনেক প্রতিভাবান ছেলে-মেয়েরা কাজ করেন। পত্রিকা-মিডিয়ার কর্তৃত্ব তাদের হাতে। তারপরও যা দেখবে, যা শুনবে সেটাই তো প্রচারিত হবে। এটাই তো মিডিয়ার ধর্ম, কর্তব্য। এখন আমার মূল বিষয় থেকে আপনি (সাংবাদিক) এক হাজার মাইল দূরে চলে যান। এটা তো ঠিক নয়।

সর্বশেষ - রাজনীতি