আওয়ামী লীগ ধর্ষকদের লালন-পালন করে : মান্না

নিউজ ডেস্ক

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, দেশ স্বাধীনের ৪৯ বছরের ইতিহাসে এত ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন দেখিনি। আমরা যদি বিচার করতে পারতাম, বিচারহীনতা থেকে সরে আসতে পারতাম তাহলে অপরাধ কমে আসতো।

আজ শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘বিচারহীনতার সংস্কৃতি, ন্যায়বিচার এবং বর্তমান বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

মান্না বলেন, আমাদের দেশের এক মন্ত্রী বললো ক্রসফায়ার আমাদের সংস্কৃতি হয়েছে গেছে। না এটা হতে পারে বলা যায় অপসংস্কৃতি, বিনা বিচারে হত্যা কাম্য না। আর বিচার শব্দটিও হারাতে বসেছে, বিচারের নামে বিচারহীনতাকে বেঁচে নেওয়া হয়েছে এখন। রাষ্ট্রীয় সংস্থাকে দলীয়করণ করে ভোট ডাকাতিতে ব্যবহার করা হয়। তাহলে কিভাবে ভালোর আশা করে, কিভাবে বিচার পাবেন।

তিনি বলেন, মৃত্যুদণ্ড কোনো বিচারের সমাধান দিতে পারে না, আমি এটা সমর্থন করি না। সত্যিকারের বিচার হলে অবশ্যই খুন, গুম কমে আসতো। এখন ধর্ষণের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করা হয়েছে। ধর্ষকতো ধর্ষণের পর এবার ধর্ষিতাকে হত্যা করবে। এর মাধ্যমে ধর্ষক প্রমাণ মুছে ফেলবে।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামী লীগ বার বার ধর্ষকদের লালন-পালন করেছে, বড় করেছে। গত ১২ বছরে এ ধরনের শত শত সমস্যা তৈরি হয়েছে। একটিরও বিচার কেনো হলো না। কেনো সেই নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হলো না। সিলেটের এমসি কলেজ, নোয়াখালীর দেলোয়ার এরাতো সব দলীয় ক্যাডার।

সংগঠনটির সভাপতি ঢালি আমিনুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল।

 

সূত্রঃ কালের কণ্ঠ

শর্টলিংকঃ

প্রিয় পাঠক, স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিও আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, [email protected] ঠিকানায়। অথবা যুক্ত হতে পারেন @silkcitynews.com আমাদের ফেসবুক পেজে। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।