মামলা, হামলা করে এক সরকারি কর্মকর্তাকে হয়রানির অভিযোগ

April 21, 2017 at 5:40 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:
রাজশাহী মহানগরীর মেহেরচণ্ডি এলাকার এক সরকারি কর্মকর্তাকে বিভিন্নভাবে মামলা হামলা করে হয়রানি করছে এক প্রভাবশালী। সেই কর্মকর্তার স্ত্রী মাবিয়া খাতুন শুক্রবার রাজশাহী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ অভিযোগ তুলে ধরেন।

 
লিখিত বক্তব্যে তিনি জানান, জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে নগরীর পদ্মা আবাসিক এলাকার শামসুজ্জামানের বিরুদ্ধে তার স্বামী আদালতে মামলা দায়ের করেন। এরপর থেকেই শামসুজ্জামান তার স্বামীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু করেন। এরই অংশ হিসেবে চাঁদাবাজি ও ছিনতাইয়ের ‘মিথ্যা’ মামলা দিয়ে বোয়ালিয়া থানায় নিয়ে নির্যাতন করায় শামসুজ্জামান। এমনকি র‌্যাবেও মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে তার স্বামী সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করায়। কিন্তু র‌্যাব কোনো অভিযোগের সত্যতা না পাওয়ায় তাকে ছেড়ে দেয়।

 
আইনের দিক দিয়ে সুবিধা করতে না পেরে সম্প্রতি এলাকার কিছু মাস্তানদের লেলিয়ে দেয়া হয়েছে সাইফুল ইসলামের বিরুদ্ধে। তারা সাইফুল ইসলামের কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানানো হলে ওই মাস্তানরা পুকুরের মাছ চুরি করে নেয়। এ বিষয়ে আদালতে সাইফুল ইসলাম মামলা দায়ের করেন যা চলমান।

 

আরো অভিযোগ করা হয়, মামলা করার পরও থেমে নেই শামসুজ্জামানের অপতৎপরতা। তিনি বিভিন্ন লোকজনকে দিয়ে ছাত্রবাসে ভাঙচুর করায়। এছাড়া আম, ডাব গাছ থেকে ফল লুটপাট করে। এছাড়া একজন নারীকে দিয়ে তিন লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেছে। টাকা না দেয়া হলে সাইফুল ইসলামকে পুলিশ দিয়ে ক্রসফায়ারে মেরে ফেলার হুমকিও দিয়েছেন শামসুজ্জামান।

 

সংবাদ সম্মেলনে মাবিয়া খাতুন জানান, তার স্বামী দীর্ঘদিন ধরে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এ কারণে পুলিশ হেডকোয়ার্টারের সিকিউরিটি সেল, ডিআইজি রাজশাহী ও মহানগর পুলিশ কমিশনারের কাছে লিখিতভাবে নিরাপত্তা চেয়েছেন। একই সাথে সংবাদ সম্মেলন থেকে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও গণমাধ্যমের সহযোগিতাও কামনা করেন তিনি।

স/শ

Print