অ্যাপেনডিক্স বাড়তি ঝামেলা নয়, অত্যন্ত দরকারি

July 13, 2018 at 7:24 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

অতীতে মনে করা হতো, পেটের ভেতরে থাকা ছোট অ্যাপেনডিক্স নামে অংশটি দেহের জন্য একটি বাড়তি ঝামেলা। আর তাই এখানে সংক্রমণ হলে চিকিত্সকরা প্রায়ই প্রত্যঙ্গটিকে ছুরি চালিয়ে ফেলে দিয়েছেন।

কিন্তু সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় দেখা গেছে  প্রত্যঙ্গটি অন্ত্রের ভেতর উপকারী ব্যাকটেরিয়ার বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। এতে দেহের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

গবেষণাটি চালিয়েছেন ক্যালিফোর্নিয়ার ডিউক ইউনিভার্সিটি মেডিকেল স্কুলের সার্জন আর ইমিউনোলজিস্টরা। বিজ্ঞান সাময়িকী জার্নাল অব থিওরিটিক্যাল বায়োলজিতে প্রকাশিত হয়েছে সে গবেষণার ফলাফল।

গবেষকরা দেখেছেন, মানবদেহের পরিপাকতন্ত্রে থাকা বিপুল পরিমাণ ব্যাকটেরিয়াকে বেঁচে থাকতে সহায়তা করে অ্যাপেনডিক্স।
পেটে প্রচুর ব্যাকটেরিয়া রয়েছে, যার বেশিরভাগই উপকারী। খাদ্য হজমে সাহায্য করে এসব ব্যাকটেরিয়া। কিন্তু প্রায়ই কোনো সমস্যায় ব্যাকটেরিয়া মরে যায়। কলেরা বা অ্যামিবিক আমাশয় হলে তা অন্ত্র বা নাড়িভুঁড়ি থেকে সব ব্যাকটেরিয়া বের করে ফেলে। অ্যাপেনডিক্সের কাজ হচ্ছে এরকম ক্ষেত্রে সেখানে লুকানো ব্যাকটেরিয়া ছড়িয়ে তা দিয়ে আবার পরিপাকতন্ত্রকে চাঙ্গা করা। অর্থাৎ অ্যাপেনডিক্স ব্যাকটেরিয়ার জন্য একটি নিরাপদ আবাস হিসেবে কাজ করে।

পাশাপাশি গবেষকরা বলছেন, অস্ত্রোপচার করে এটি ফেলে দিলে তাৎক্ষনিকভাবে কোনো সমস্যা না হলেও দীর্ঘমেয়াদে দেহের ক্ষতি হয়।

এছাড়া গবেষকরা বলছেন, অ্যাপেনডিক্সের দেয়ালে রয়েছে উচ্চমাত্রায় রোগপ্রতিরোধী সেল। এগুলো আদতে দেহের রোগপ্রতিরোধে কার্যকরভাবে সহায়তা করে।

গবেষকরা বলছেন, যাদের অ্যাপেনডিক্স অপসারণ করা হয় তাদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। এমনকি তাদের ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের ঝুঁকি চার গুণ বেড়ে যায়।

Print