নেটিজেনের তীরে বিদ্ধ ‘ধড়ক’

June 14, 2018 at 1:17 am

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

‘ধড়ক’ ছবির ট্রেলার মুক্তি পেতেই ভাইরাল হয়ে গিয়েছে জাহ্নবী কাপুর এবং ইশান খট্টর৷ দুই স্টারকিডের প্রসংশায় পঞ্চমুখ বলিপাড়া৷ সবকিছুর যেমন একটা ভাল দিক থাকে তেমনই একটা খারাপ দিকও থাকে৷ ছবির প্রশংসার মাঝেই চলে এল নেগেটিভ প্রতিক্রিয়া৷ মারাঠি ছবি ‘সৈরত’র রিমেক হল ‘ধড়ক’৷ সে নিয়ে কোনও সমস্যাই ছিল না প্রথমে৷ তবে ট্রেলার মুক্তি পেতেই ক্ষুব্ধ হলেন দর্শকরা৷ মারাঠি ছবির একটা আলাদা রকমের পবিত্রতা ছিল সেটা নষ্ট করে দিয়েছে ‘ধড়ক’৷ এই দাবি নিয়ে ছবির বিরুদ্ধে ট্যুইট করেছেন অসংখ্য দর্শক৷

এক একটি ট্যুইটে ছবির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিচ্ছে সাইবারবাসী৷ তাদের কথায়, “হিন্দি রিমেকে না আছে সেই ম্যাজিক না আছে সেই পবিত্রতা৷ ভীষণ হতাশ হলাম৷ যাই হোক গোটা টিমের জন্য শুভেচ্ছা রইল৷” অনেকেই মারাঠি ছবির ‘সৈরত’র হিন্দি রিমেক নিয়ে অন্যরকম আশা করেছিলেন৷ তবে ‘ধড়ক’ যে সেই আশার এক বিন্দুও পূরণ করতে পারেনি, তার প্রমাণ তাঁদের ট্যুইট৷ নেটিজেনের দাবি, ‘সৈরত’ এ দুটি ছেলেমেয়ে একেবারে সাধারণ পরিবারের ছিল৷ গ্ল্যামারের লেশমাত্র নেই৷ এমনকি ছেলেটি একটি গরীব পরিবারের ছিল৷ সেখানে ইশানকে দেখে একেবারে গরীব পরিবারের মনে হচ্ছে না৷ তাঁর পোশাক আশাক, চেহারা, সবের মধ্যে গ্ল্যামারের আর আভিজাত্যের ছোঁয়া৷

তাদের আরও দাবি, জাহ্নবী চুল মেক আপ কোনকিছুই সাবলিল নয়৷ সবটাই মেকি৷ সাধারণ পরিবার থেকে আসা কোনও মেয়ের চিহ্নমাত্র নেই তাঁর মধ্যে৷ ইশানের অভিনয় ভাল লাগলেও জাহ্নবীকে সাইবার ইউজারদের তেমন পছন্দ হয়নি৷ তাদের মতে আড়ষ্টতা কাটেনি জাহ্নবীর৷ এমনকি ‘জিঙ্গাত’ গানটির রাজস্থানি রিমেক করাটাও কেউ মেনে নিতে পারেনি৷

মাধুর-পরীর প্রেমের কাহিনীতে ধরা দিল জাহ্নবী-ইশানের রশায়ন৷ ‘ধড়ক’র ট্রেলারে বলিউড পেল দুই তাবড় স্টারকিড৷ তবে অধিকাংশ দর্শকদের ছবির ট্রেলারে মন ছুঁয়ে গেল জাহ্নবী-ইশানের অভিনয়৷ ইশানের অভিনয় দর্শকরা আগেই মাজিদ মাজিদির ‘বিয়ন্ড দ্য ক্লাউডস’ এ দেখছেন৷ তবুও জাহ্নবী এবং ইশান, দু’জনের দিকেই সমানভাবে নজর ছিল সিনেপ্রেমীদের৷ ট্রেলারের কমেন্ট সেকশনে জাহ্নবীর সম্বন্ধে কেবল একটা কথাই ভরে উঠছে৷ শ্রীদেবীর পুনর্জন্ম৷

সারপ্রাইজ প্যাকেজের মতো ধরা দিলেন অভিনেত্রী জাহ্নবী কাপুর৷ চোখের চাউনি, কথা বলার ধরণ সবটা দেখেই দর্শকের মনে হবে জাহ্নবী যেন বহুদিন ধরে অভিনয় জগত আছেন৷ প্রথম ক্যামেরার সামনে অভিনয় করছেন, হালকা জড়তা তো থাকবেই৷ জাহ্নবীকে দেখে সেরম বোঝার কোনও অবকাশই নেই৷ তাঁর চোখও যেন কথা বলছে প্রতিটি দৃশ্যে৷ অভিনয়ের ময়দানে তিনি যে লম্বা রেসের ঘোড়া তা কিন্তু বেশ বুঝিয়ে দিলেন৷ মিস কাপুর৷

ছবিতে ভিলেনের ভূমিকায় আশুতোষ রানা৷ তাঁর চরিত্রটিউ মোড় ঘোড়াবে চিত্রনাট্যের৷ মাধুর-পার্থবীর পথে কাঁটা হয়ে সেই দাঁড়াবে৷ যা পুরোপুরি বদলে দেবে তাদের জীবন৷ ছবির পরিচালক শশাঙ্ক খইতান৷ সঙ্গীত পরিচালক অজয় এবং অতুল৷ ২০ জুলাই মু্ক্তি পেতে চলেছে ছবিটি৷ কলাকাতা 24

Print