রাজশাহীতে তিন দিনে ১৬ টিকিট কালোবাজারি আটক

June 13, 2018 at 11:31 am

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঈদে ট্রেনের টিকিট নিয়ে রাজশাহী রেল স্টেশনের কারোবাজিরির অভিযোগে গত তিনদিনে ১৬ জনকে জেল জরিমানা প্রদান করেছে ভ্রামম্যাণ আদালত। এসময় অভিযুক্তদের বিভিন্ন মেয়াদে সাজা ও জেল জরিমানা করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার ছয়জন, গত রোববার চারজন ও শনিবার দুই নারীসহ ছয়জনকে জরিমানা ও সাজা দেয়া হয়।

মঙ্গলবার সকালে ট্রেনের টিকিট কালোবাজারির অভিযোগে ছয়জনকে আটক করেছে র‌্যাব। পরে তাদের ভ্রামম্যাণ আদালত পরিচালনা করে বিভিন্ন মেয়াদের সাজা প্রদান করা হয়।

ভ্রামম্যাণ আদালতে সাজা প্রাপ্তরা হলেন, তেরখাদিয়া এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে মামুনউর রশিদ সুমান (২৬)। তাকে এক মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড। হেতেম খাঁ এলাকার মোশাররফ হোসেনের ছেলে মেহদী হাসান শান্তকে (২৬) সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড। চারঘাটের পরানপুর এলাকার মৃত বাবুলের ছেলে রকি হাসানকে (২২) দুই মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড। শিরোইল এলাকার আহসান হাবিব সানিকে (২৩) ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

এছাড়া নাটোরের লালপুর আবদুলপুর এলাকার শাহবুল হোসেনের ছেলে সিহাব (১৪)। তাকে ভ্রামম্যাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে কোর্টে নিয়ে যাওয়া হয়। আর পুঠিয়ার খোকশা এলাকার আবদুস সোবহানের ছেলে এনামুল হক (১৯)। তাকে রাজশাহী রেলওয়ের জিআরপি থানায় হস্তান্তর করা হয়। পরে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থাগ্রহণ করা হয়।

ভ্রামম্যাণ আদালত পরিচালনা করেন, নির্বাহী মেজিষ্ট্রেট মামনুন আহমেদ অনীক। এসময় উপস্থিত ছিলেন, র‌্যাপিড এ্যাকশা ব্যাটেলিয়া র‌্যাব-৫ এর এএসপি সজলসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রোববার সকালে রেলস্টেশন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে চারজনকে জেল জরিমানা করা হয়। ভ্রামম্যাণ আদালত পরিচালনা করেন, রাজশাহী জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান। গ্রেফতারকৃতরা হলেন, নগরীর শিরোইল কলোনী এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে হাফিজুর রহমান, একই এলাকার আবদুস সামাদের ছেলে সাফায়েত হোসেন শিমুল ও আবু হানিফের ছেলে কাওসার আলী এবং পবার কার্পাসমূল গ্রামের আবু হানিফের ছেলে কাওসার আলী।

একদিন আগে টিকেট কালোবাজারির অভিযোগে দুই নারীসহ ছয়জনকে আটক করে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যদের সহযোগিতায় শনিবার সকালে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

আটকরা হলেন, দুলাল হোসেন, সানোয়ার হোসেন, বাপ্পি, দুলাল শেখ, মাহাবুবা খাতুন ও রেখা খাতুন। এদের মধ্যে সানোয়ার হোসেন ও দুলাল শেখকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। বাকি চারজনের প্রত্যেককে বাংলাদেশ রেলওয়ে আইনে ৫শ’টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

 

স/আ

 

Print