রাণীনগরে ভিজিএফের তিন বস্তা চাল উদ্ধার

June 11, 2018 at 3:26 pm

রাণীনগর প্রতিনিধি:

আসন্ন ঈদকে সামনে রেখে গরীব-অসহায় অতিদরিদ্রদের মাঝে সরকারের পক্ষ থেকে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ শুরু হয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় নওগাঁর রাণীনগরের ইউনিয়ন পরিষদে শুরু হয়েছে ভিজিএফের চাল বিতরণ কার্যক্রম। কিছু অসাধু মানুষ এই ভিজিএফ কার্ডধারী ব্যক্তিদের লোভ দেখিয়ে ক্রয় করে বাজারে তা বেশি দামে বিক্রয় করে।

সোমবার সকালে ভিজিএফ চাল ক্রয়-বিক্রয় করার সময় ৩ বস্তা চাল (৯০ কেজি) আটক করেছে পুলিশ। এসময় ক্রেতা ও বিক্রেতারা পালিয়ে যায়। উপজেলার সদর ইউনিয়নে ভিজিএফ চাল বিতরণের পর ইউনিয়ন পরিষদের সামনে থেকে ৩ বস্তা চাল ক্রয়-বিক্রয়ের সময় আটক হয়।

জানা গেছে, উপজেলার ১নং খট্টেশ^র রাণীনগর সদর ইউনিয়নে সোমবার সকালে গরীব দু:খী অতিদ্ররিদ্র মানুষের মাঝে ভিজিএফের ১০ কেজি চাল বিতরণ কার্যক্রম চলছিলো। এসময় লোহাচুড়া গ্রামের মৃত ইয়াকুবের ছেলে মো: ইব্রাহীম মন্ডলসহ আরো কিছু অসাধু চাল ব্যবসায়ীরা গরীব দু:খীদের লোভ দেখিয়ে ২৮ টাকা কেজি হিসেবে ভিজিএফের চাল ক্রয় করছিলেন।

এই চালটি ক্রয় বিক্রয়ের সরকারী কোন বিধান না থাকায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পেড়ে পুলিশ সেখান থেকে ৩ বস্তা ভিজিএফের চাল আটক করেন। পরে আটককৃত চাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর হস্তান্তর করা হয়েছে। আটককৃত ৩ বস্তা ভিজিএফের চালের ক্রেতা ছিলেন মো: ইব্রাহীম মন্ডল। চাল গুলো আটক করার আগে প্রায় ৮-১০ বস্তা ভিজিএফের চাল ক্রয় করে ইব্রাহীম মন্ডল বাড়িতে পাঠিয়েছেন বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে চাল ক্রেতা মো: ইব্রহীম মন্ডল বলেন, আমি মাছের খাবারের জন্য কিছু চাল কিনেছি।

এব্যাপারে রাণীনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোনিয়া বিনতে তাবিব বলেন, সরকারি এই চাল ক্রয় কিংবা বিক্রয় সম্পন্ন নিষেধ এবং আইনত দন্ডীয় অপরাধ। এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

স/আ

Print