ভাঙা স্যাফট কাল হলো দুই শ্রমিকের!

April 16, 2018 at 11:04 am

নিজস্ব প্রতিবেদক: সঠিক তদারকি ও দায়িত্বে অবহেলার জন্যই রাজশাহীতে ক্রেন উপরে পরে দুই নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।  ক্রেনের স্যাফট ভাঙার জন্যই এই দুর্ঘটানা ঘটেছে রাজশাহী টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারে (টিটিসি)। ক্রেনটি ক্রয় করা পরে একবারের জন্য ক্রেনের স্যাফটটি পরিবর্তন করা হয়নি। তাই ক্রেনের স্যাফটটির ভেতরে আগে থেকেই ভেঙে যায়। তার পরে দেখভালের অভাবে পরিবর্তন করা হয়নি এমন অভিযোগ তুলেছে শ্রমিকরা।

সরজমিনের নির্মাণাধীন বিল্ডিং এর তিনতলা ছাদের উপরে গিয়ে দেখা যায়, তিন তলা ভবনের কাজ কাজ চলছে। তিনতলায় নির্মাণ সামগ্রী উফানো জন্য বসানো ক্রেন। আর ক্রেন বসানো স্যাপস টি উচ্চতা প্রায় তিন ফুট। আর ঘনন্ত প্রায় চার ইঞ্চি। চার ইঞ্চির স্যাপস এর উপরে দীর্ঘদিন কার করার ফলে ভেতর থেকে ভেঙে গেছে অনেক আগেই। কিন্তু সেটা খেয়াল করেনি কর্তৃপক্ষ। তার উপরের কাজ চালাচ্ছেন তারা।

এছাড়া দেখা যায়, ক্রেনের ভার সামলানের জন্য পাশের লোহার উপরে রাখা হয়েছে সিমেন্ট ও বালু মিলে ১৭ বস্তা। এর মধ্যে নয় বস্তা সিমেন্ট ও আট বস্তা বালু। এর ফলে নির্মাণ সামগ্রী উঠানো সময় উপরে না পরে সেই জন্য রাখা হয়েছে বলে জানায় মেশিন দেখাভালের দায়িত্বে থাকা সোহাগ।

টিটিসির কর্মরত শ্রমিকরা জানান, কোনো ধরণের নিরাপত্তা ছাড়াই নিচে কাজ করছেন নির্মাণ শ্রমিকরা। এছাড়া কাজ শুরুর আগে যন্ত্রাংশ পরীক্ষা করেও দেখেননি সংশ্লিষ্টরা। এতে ওই দুই শ্রমিকের মৃত্যু হয়। তবে কর্মীদের নিরাপত্তা সরঞ্জাম সরবরাহ করা হয়েছে বলে দাবি করেন নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা।

প্রতিষ্ঠানটির প্রকল্প ব্যবস্থাপক আমিনুল ইসলাম বলেন, বিদেশী একটি প্রতিষ্ঠান সাব-কন্ট্রাক্ট নিয়ে শ্রমিকদের দিয়ে কাজ করাচ্ছিলেন। রোববার সকাল ৮টা থেকে শুরু হয় তৃতীয় তলার কাজ। সেখানে ক্রেনে করে নির্মাণ সামগ্রী তুলছিলেন কর্মীরা। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে স্যাফট ভেঙে ক্রেনটি নিচের মিক্সার মেশিন ঘেঁষে পড়ে যায়।

রাজশাহীর শাহ মখদুম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিল্লুর রহমান বলেন, মরদেহ ময়না তদন্ত কর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে।

এর আগে গতকাল রোববার সকালে টিটিসির নির্মাণাধীন একটি বহুতল ভবন থেকে ক্রেন ভেঙে পড়ে নগরীর ঠাকুরমারা সুতাহটি এলাকার সেলিম ইসলামের ছেলে মোস্তাজুল ইসলাম (২২) ও ঈশ্বরদীর বাবু মিয়া (৩৫) নামে দুই নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। এই দুই শ্রমিক কোরিয় সহায়তা সংস্থা- কোইকার অর্থায়নে নির্মিত রাজশাহী টিটিসির ক্যাপাসিটি বিল্ডিং প্রকল্পের ভাড়া করা কর্মী ছিলেন। মুক্তা কনস্ট্রাকশন প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে।

স/আ

Print