রাজশাহীতে বাংলাদেশ সিটি ও পৌর কর্মচারীর ফেডারেশনের মানববন্ধন

March 13, 2018 at 5:54 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:
সরকারী কোষাগার থেকে পেনশন প্রথা চালু, বেতন ভাতা প্রদান সহ ৬ দফা দাবী আদায়ের লক্ষে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ সিটি ও পৌর কর্মচারীর ফেডারেশন। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে রাজমাহী সিটি কর্পোরেশনের সামনে মানবন্ধন করেন তারা। এ সময় তারা পেনশন প্রথা চালু, সরকারী কোষাগার থেকে বেতন ভাতা প্রদান ও মাস্টাররোল কর্মচারীদের চাকুরীতে স্থায়ী করণসহ ৬ দফা দাবী আদায়ের লক্ষ্যে এ মানববন্ধন করেন।

ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আজমীর আহাম্মদ মামুন বলেন, বাংলাদেশের ১১টি সিটি কর্পোরেশন ও ৩২৭টি পৌরসভা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের সংবিধানের ৫৯(১) অনুচ্ছেদ অনুযায়ী স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯ এর আওতায় গঠিত প্রতিটি সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভা একটি প্রশাসনিক কাঠামো রয়েছে। এই কাঠামো অনুযায়ী তারা সততা, নিষ্ঠা ও দায়িত্বশীলতার সহিত জনগণের সেবা প্রদান করে যাচ্ছে। সরকারী সকল আদেশ মানলেও তারা রাজস্ব খাত থেকে বেতন ভাতা ও অন্যান্য সুবিধাদী না পওয়ায় সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারী মানবেতর জীবন যাপন করছেন। সেইসাথে পেনশন সুবিধা না থাকায় শেষ বয়সে এসে তাদের মানবেতর জীবন যাপন করতে হবে এবং অনেকেই করছেন।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের অনেক সিটি কর্পোরেশন আছে যাদের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মাসের পর মাস বেতন ভাতা ও অন্যান্য সুবিধা পাননা। মাস শেষে বেতন না পেলে পরিবার পরিজন নিয়ে বেকায়দায় পড়তে হয় এবং অন্যের মুখাপেক্ষি হতে হয় তাদের। এই অবস্থা হতে উত্তোরণের জন্য তারা অবিলম্বে সিটি ও পৌরসভা কর্মচারীদের পেনশন প্রথা চালু, কোষাগার থেকে বেতন ভাতা প্রদান, সিটি ও পৌর বিধিমালা ৫৩(২) ৫৪(২) ও ৬৮ ধারাসহ সকল কালো আইন বাতিল পূর্বক সিটি ও পৌর কর্মচারীদের বিধিমালা যুগোপোযোগী, সকল প্রকার মাস্টাররোল কর্মচারীদের চাকুরী স্থায়ীকরণ, নিয়োগের ক্ষেত্রে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পোষ্যদের চাকুরী প্রদান, পদোন্নতি ও সিলেকশনগ্রেড প্রদান করার দাবী জানান। এছাড়াও অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারীদের প্রযোজ্য সকল উৎসব ভাতা প্রদান করার জন্য কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেন।

সভাপতির বক্তব্যে দুলাল শেখ বলেন, সিটি কর্পোরেশনের মেয়র কর্মচারী কর্মকর্তাদের বেতন ভাতা প্রদানের জন্য ব্যস্ত থাকতে হয়। এতে করে অন্যান্য উন্নয়ন কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে। সরকারী কোষাগার থেকে সকল সুবিধাদী প্রদান করলে মেয়র এই চিন্তা থেকে মুক্তি পাবেন এবং জনগণের আরো বেশী সেবা প্রদান করতে পারবেন বলে তিনি জানান।

আগামীতে দাবী আদায়ের আন্দোলনে ফেডারেশনের সকল সদস্যসহ অন্যান্য কর্মচারী কর্মকর্তাদের অংশ গ্রহন করার জন্য আহবান জানান। মানববন্ধনে ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ ও সকল সদস্য উপস্থিত ছিলেন।
স/শ

Print