জয়পুরহাটে মুখ বেঁধে তুলে নিয়ে গিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ

January 13, 2018 at 5:37 pm

জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ
জয়পুরহাট সদর উপজেলার বড় তাজপুর-সোনার পাড়া গ্রামে নবম শ্রেনির এক ছাত্রী ধর্ষনের শিকার হয়ে মূমূর্ষ অবস্থায় হাসপতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। গত শুক্রবার রাতে তাকে মুখ বেঁধে তুলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষনের পর তাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় অজ্ঞাত সংখ্যক ধর্ষক।

সে পার্শ্ববর্তী একটি মাদ্রাসায় নবম শ্রেনিতে লেখাপড়া করছে।

ধর্ষিতার পারিবারিক সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে জয়পুরহাট সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সেলিম হোসেন জানান, বাড়ির নিকটবর্তী একটি ইসলমী জলসা দেখতে মেয়েটি বাড়ি থেকে বের হওয়ার পর ওঁৎ পেতে থাকা অজ্ঞাত সংখ্যক দূর্বৃত্তরা তার মুখ বেঁধে তুলে নিয়ে যায়। পরে ওই গ্রামের একটি জঙ্গলে নিয়ে গিয়ে ধর্ষনের পর তাকে ফেলে রেখে পালিয়ে যায় তারা।

ধর্ষনের শিকার মেয়েটির গোঙ্গানীর শব্দে পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়া গ্রামবাসীরা শুনতে পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মেয়েটিকে উদ্ধারের পর মূমূর্ষ অবস্থায় তাকে জয়পুরহাট জেলা আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দেন।

এই ঘটনায় ধর্ষিতার বাবা বাদী হয়ে শনিবার ভোর রাতে জয়পুরহাট সদর থানায় মামলা দায়ের করেন। মেয়েটি খানিকটা সুস্থ হলে তার মুখে বিস্তারিত শুনে আসামীদের গ্রেফতারসহ প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানান ওসি।

স/অ

Print