ইজতেমায় মাওলানা সা’দকে চেয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে চিঠি

January 9, 2018 at 9:56 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

গাজীপুরের টঙ্গীতে অনুষ্ঠিতব্য বিশ্ব ইজতেমায় বিশ্ব তাবলিগ  জামাতের আমির হজরত মাওলানা সাদের অংশগ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁনের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশে তাবলিগ জামাতের ছয়জন শুরা সদস্য গতকাল সোমবার কাকরাইলের মাদ্রাসা উলুমি দ্বীনিয়া মালওয়ালি মসজিদের এক প্যাডে এই আবেদন জানান।

প্রথমেই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে সালাম জানিয়ে শুরা সদস্যরা বলেন, আপনার (স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী) গত ৬ জানুয়ারি তারিখের সভায় প্রদত্ত নির্দেশনা মোতাবেক ৭ জানুয়ারি সকালে যাত্রাবাড়ী মাদ্রাসায় হজরত মাওলানা মাহমুদুল হাসানের কক্ষে কাকরাইলের ১১ জন শুরা হজরত, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এবং আরো কয়েকজন উলামায়ে কেরামসহ একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সেই সভায় কাকরাইলের হজরতদের অধিকাংশ প্রতিনিধি (১১ জনের মধ্যে ছয়জন) সম্মত হন যে, আসন্ন টঙ্গী বিশ্ব ইজতেমায় হজরত মাওলানা সা’দ সাহেবের অংশগ্রহণ করা অত্যন্ত জরুরি। আমাদের এই মতামতের পরও উক্ত সভায় মাওলানা সা’দ সাহেবের আগমনের ব্যাপারে নেতিবাচক সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়, যার সাথে আমরা সম্পূর্ণ দ্বিমত পোষণ করছি। এই আমরা লিখিতভাবেও উপদেষ্টা পরিষদের কাছে পেশ করেছি।

আবেদনে আরো বলা হয়, ‘এখানে বিশেষভাবে উল্লেখ্য, বিশ্বের তাবলিগ জামাতের আমির হজরত মাওলানা সা’দ সাহেবের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া কাকরাইলের শুরা হজরতদের নেতিবাচক মতামত তাদের পদের সাথে সম্পূর্ণ সাংঘর্ষিক।’

‘প্রসঙ্গত উল্লেখ করা যেতে পারে যে, দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে আমাদের জানানো হচ্ছে যে, হজরত মাওলানা সা’দ সাহেব ইজতিমায় না এলে সেখানকার মুসল্লিরা টঙ্গী বিশ্ব ইজতিমায় অংশগ্রহণ করবেন না। এ ছাড়া বিদেশ থেকে যেসব তাবলিগকর্মী ইতিমধ্যে বাংলাদেশ এসে পৌঁছেছেন, হজরত মাওলানা সা’দ সাহেব না এলে তাঁরাও অত্যন্ত মনঃক্ষুণ্ণ হবেন। এতে সার্বিকভাবে বাংলাদেশ সরকারের ভাবমূর্তি ও সুনাম ক্ষুণ্ণ হবে বলে আমরা মনে করি।

এমতাবস্থায়, আমরা জরুরিভাবে হজরত মাওলানা সা’দ সাহেবের বাংলাদেশে আগমনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আপনাকে বিনীত অনুরোধ করছি।’

এরপর সংশ্লিষ্ট ছয়জন শুরা সদস্য তাঁদের নামের পাশে স্বাক্ষর করেন। এই ছয়জন হলেন খান সাহাবুদ্দিন নাসিম, সৈয়দ ওয়াসিফুল ইসলাম, মাওলানা মোশাররফ হোসেন, প্রফেসর ইউনুস শিকদার, মাওলানা আব্দুল হামিদ মাসুম ও প্রফেসর আনোয়ার হোসেন।

গত বছর থেকে বাংলাদেশে তাবলিগ জামাতের একটি অংশ টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় বিশ্ব তাবলিগ জামাতের আমির মাওলানা সা’দের আগমন ঠেকাতে দফায় দফায় বৈঠক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দাবি জানিয়ে আসছিল।

এর পরিপ্রেক্ষিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ৬ জানুয়ারি শনিবার বাংলাদেশে তাবলিগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরব্বিদের সঙ্গে বৈঠক করেন। পরের দিন ৭ জানুয়ারি রোববার দুপুরে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের টঙ্গী অঞ্চল কার্যালয় চত্বরে বিশ্ব ইজতেমার ফলোআপ সভা হয়। সেখানে তাবলিগের শীর্ষস্থানীয় একাংশের মুরুব্বিরা বিশ্ব ইজতেমায় তাবলিগ জামাতের বিশ্ব আমির ভারতের মাওলানা সা’দের যোগদানকে ঘিরে সৃষ্ট বিতর্কের দ্রুত অবসানের দাবি জানান।

Print