পুঠিয়ার দুই ইউপিতে ফের নির্বাচন

December 7, 2017 at 7:38 pm

 পুঠিয়া প্রতিনিধি:

ভোট গ্রহনে আলাদতের স্থগিতাদেশের ওপর উচ্চ আদালতে রিট আবেদন করায় ফের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার ভালুকগাছি ও শিলমাড়িয়া দুই ইউপিতে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্থগিতাদেশের ওপর রিট কারি ও ভালুকগাছি ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ মনোনিত চেয়ারম্যান প্রার্থী তাকবীর হাসান।

তিনি জানান, ভালুকগাছি ও শিলমাড়িয়া ইউনিয়নে আগামী ২৮ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণে উচ্চ আদালত ছয় মাসের স্থগিতাদেশ দেন। আদালতের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে তিনি গত ৩ ডিসেম্বর একটি রিট আবেদন করি। হাইকোর্টের আপিল বিভাগ তার দায়ের করা আবেদনটি আমলে নিয়ে শুনানি শেষে আজ বৃহস্পতিবার চেম্বার জজ ভোট গ্রহণের স্থগিতাদেশটি স্থগিত করেন এতে আগামী ২৮ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণে আর কোনো বাঁধা নেই বলে জানান তাকবীর হাসান।

এ ব্যপারে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং অফিসার ফাতেমা খাতুন সিল্কসিটি নিউজকে জানান, উচ্চ আদালতে রিট করায় দুই ইউনিয়নের নির্বাচন স্থগিতাদেশের গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। তবে নতুন করে ভোট গ্রহণের কোনো আদেশ আজ বৃহস্পতিবার বিকেল পর্যন্ত উপজেলা নির্বাচন কার্যালয়ে আসেনি।

তিনি জানান, এধরনের নিদের্শনা এলে যথা সময়েই ভোট গ্রহনের সকল প্রস্তুতি নেয়া হবে। প্রশঙ্গত, গত ১২ নভেম্বর আইনী জটিলতায় স্থগিত থাকা সারাদেশের ইউপিগুলোতে ২৮ ডিসেম্বর ভোট গ্রহণের জন্য তফসিল ঘোষণা করেন নির্বাচন কমিশন। এর মধ্যে পুঠিয়ার ভালুকগাছি ও শিলমাড়িয়া দুটি ইউনিয়নও রয়েছে।

তফসিল অনুযায়ী ভোট গগ্রহনের সকল প্রস্তুতি গ্রহন করা হয়। তবে সীমানা জটিলতা দেখিয়ে ভোট গ্রহণ স্থগিত রাখতে শিলমাড়িয়া ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জহির উদ্দীন মাস্টার উচ্চ আদালতে রিট আবেদন করেন। ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে উচ্চ আদালত গত ২৯ নভেম্বর ছয় মাসের জন্য ভোট গ্রহণ স্থগিত রাখার নির্দেশ দেন।

স/শ

Print