স্বামীর হয়ে পরীক্ষা, স্ত্রী কারাগারে

October 21, 2017 at 11:39 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষায় স্বামীর হয়ে পরীক্ষা দিতে গিয়ে ধরা পড়েছেন স্ত্রী। গতকাল শুক্রবার পরীক্ষাকেন্দ্রের বাইরে একটি বাসায় উত্তরপত্র নেওয়ার পর পরীক্ষা দিচ্ছিলেন তিনি। এই অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালত তাঁকে এক বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন।

এ ছাড়া পরীক্ষার খাতা ও প্রশ্নপত্র বাইরে নেওয়ার কাজে সহায়তার জন্য উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের কাছে কেন্দ্রসচিবসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছেন আদালত।

সাজা পাওয়া নারীর নাম লায়লা খানম। তিনি ভূঞাপুর পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কমিশনার রাশেদুল আলম তালুকদারের স্ত্রী। আজ শনিবার তাঁকে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ।

ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী হাকিম এ টি এম ফরহাদ চৌধুরী জানান, শুক্রবার উপজেলার লোকমান ফকির ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন স্নাতক শ্রেণির তৃতীয় সেমিস্টারের ইসলামিক স্টাডিজ বিষয়ের পরীক্ষা চলছিল।

সাবেক কমিশনার রাশেদুল আলম তালুকদারও পরীক্ষার্থী ছিলেন। কিন্তু পরীক্ষা শুরু হওয়ার পরই তিনি খাতা ও প্রশ্নপত্র নিয়ে কলেজের পাশের কামরুল ইসলামের বাড়িতে চলে যান। সেখানে তাঁর হয়ে পরীক্ষা দিচ্ছিলেন তাঁর স্ত্রী লায়লা খানম। খবর পেয়ে তিনি (নির্বাহী হাকিম) সেখানে গিয়ে হাতেনাতে আটক করেন লায়লা খানমকে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তিনি তাঁকে এক বছরের কারাদণ্ড ও এক হাজার টাকা জরিমানা করেন।

এ ছাড়া নির্বাহী হাকিম একজনের পরীক্ষা অন্যজনকে দিতে এবং পরীক্ষার খাতা ও প্রশ্নপত্র বাইরে নেওয়ার কাজে সহায়তার জন্য কেন্দ্রসচিব ও লোকমান ফকির মহিলা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ হাসান আলী, একই কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক শায়লা আক্তার, গ্রন্থাগারিক আশরাফ হোসেন, শহীদ জিয়া মহিলা কলেজের প্রভাষক মিজানুর রহমান ও কষ্টাপাড়া আলিম মাদ্রাসার শিক্ষিকা রাবেয়া খাতুনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থার নেওয়ার জন্য সুপারিশ করেছেন।

অন্যদিকে পরীক্ষায় অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে পরীক্ষা কেন্দ্র বাতিলের সুপারিশ করেন নির্বাহী হাকিম।

কেন্দ্রসচিব হাসান আলী বলেন, ‘প্রশ্নপত্র ও খাতা বাইরে যাওয়ার বিষয়টি আমি জানি না। তদন্ত করলে বের হয়ে আসবে কীভাবে সেগুলো বাইরে গেল।’ প্রথম আলো

Print