দলের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র সফল হতে দেওয়া হবে না: এমপি এনামুল

October 21, 2017 at 9:37 pm

নিজস্ব প্রতিবেদক:
দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বাগমারা উপজেলা আ.লীগের সভাপতি সাংসদ ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক বলেছেন, দেশ যখন উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে তখনি একটি দল দেশকে পিছিয়ে ফেলার ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। দলের বিরুদ্ধে কোনো ষড়যন্ত্র সফল হতে দেওয়া হবে না। তাদের সর্ম্পকে সজাগ হতে হবে। তিনি সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে দলের জন্য কাজ করার আহ্বান জানান।

শনিবার সকালে উপজেলার ভবানীগঞ্জ নিউমার্কেটে তৃণমূল নেতাদের নিয়ে আয়োজিত বিশেষ বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি দলের বিপথগামী কয়েকজন নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, যাঁরা সংগঠনের পদ পদবী ব্যবহার করে দলের ক্ষতি করে তাঁদের দলে থাকার অধিকার নেই। তাঁরা যে নীল নকশা তৈরি করে দলকে ধ্বংস করার চেষ্টা করেছিলেন তা প্রতিহিত করা হয়েছে।

তিনি দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার মধ্যে বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মীদের উপস্থিতিতে সন্তোষ প্রকাশ করে তাদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, আপনারাদের উপস্থিতিই প্রমাণ করে উপজেলা আওয়ামী লীগ কতটা শক্তিশালী। তিনি এই ঐক্য ধরার জন্য নেতা-কর্মীদের আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, এলাকার লোকজন যে আশা আকাঙ্খা নিয়ে করে নৌকার প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করেছেন তা পূরণের সর্বাতœক চেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি আগামীতে আবারো নৌকার প্রার্থীকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করার আহ্বান জানান।

উপজেলা আ.লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক গোলাম সারওয়ার আবুলের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অনিল কুমার সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক আলফোর রহমান, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক প্রতীক দাস রানা, উপজেলার সহসভাপতি আহসান হাবিব, সদস্য আবদুল হাকিম, আফসারুজ্জামান, আব্দুস সালাম, ইউসুফ আলী, আব্দুর রাজ্জাক, মাহাবুর রহমান প্রমুখ।

সভায় উল্লেখযোগ্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ভবানীগঞ্জ পৌরসভার সভাপতি মেয়র আব্দুল মালেক মণ্ডল, উপজেলা আ.লীগের সহসভাপতি মতিউর রহমান টুকু, রিয়াজ উদ্দিন মাস্টার, আফতাব উদ্দিন আবুল, যুগ্ম সম্পাদক সিরাজ উদ্দিন সুরুজ, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল হোসেন মাস্টার, দপ্তর সম্পাদক ইসরমাইল হোসেন বেঙ্গল, সহদপ্তর সম্পাদক নুরুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ জাহাঙ্গীর আলম হেলাল, সহ প্রচার সম্পাদক ফরহাদ হোসেন মজনু, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মহসিন আলী, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক নাসির উদ্দিন, সাংস্কৃতিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, সদস্য অধ্যাপক মালেক মেহমুদ, আলী হাসান মাস্টার, জাহাঙ্গীর আলম, জেলার সদস্য জাহানার খাতুন, সুলতানা ইয়াসমিন ফরিদা, জেলা পরিষদের সদস্য আব্দুর রশিদ, মাহমুদুর রহমান রেজা, নার্গিস সুলতানা, চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ ফৌজদার, আয়েন উদ্দিন, সরদার জান মোহাম্মদ, মকলেছুর রহমান দুলাল, আনোয়ার হোসেন, আজাহারুল হক, আসলাম আলী আসকান, সাবেক চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান, গোবিন্দপাড়া ইউনিয়ন সভাপতি আক্তারুজ্জামান বুলবুল, বড়বিহানালীর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আবু তাহের মাস্টার, গোয়ালকান্দির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক মোল্লাহ, সোনাডাঙ্গার সাধারণ সম্পাদক কাঞ্চন রায় চৌধুরী, মাড়িয়ার শামসুল হক, উপজেলা মহিলা আ.লীগের সভাপতি মরিয়ম বেগম, যুবলীগের সভাপতি আল মামুন, যুগ্ম সম্পাদক শামীম মীর, সাংগঠনিক সম্পাদক মাজেদুর রহমান সোহাগ, গণিপুরের সভাপতি সানোয়ার হোসেন, যোগিপাড়ার শেখ মিঠু, গোয়ালকান্দির সোহেল রানা, দ্বীপপুরের টুটুল, সবুজ, বিহানালীর যুবনেতা রেজাউল করিম রেজা, ছাত্রলীগের জেলার সহসভাপতি উজ্জল হোসেন, উপজেলার সভাপতি আব্দুল মালেক নয়ন, সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইসলাম, সহ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন সান্টু, ছাত্রলীগ নেতা আশিকুর রহমান সজল, বাসুপাড়ার সভাপতি এনামুল হক, যুব মহিলালীগের সভাপতি শাহিনুর খাতুন, সম্পাদক পারভীন খাতুন, কৃষকলীগের সভাপতি এমদাদুল হক, সম্পাদক আসাদুজ্জামান আসাদ।

এছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সকল সদস্য, ১৬টি ইউনিয়ন ও দুটি পৌরসভার সব ওয়ার্ডের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকেরা উপস্থিত ছিলেন।

সকাল থেকে শুরু হয়ে দুপুর পর্যন্ত সভা চলে। শেষে সভার সভাপতি সাংসদ এনামুল হক উপস্থিত তৃণমূলের ১৯০০ নেতাকে শপথ পাঠ করান। এছাড়াও দলের আরও দেড় হাজার কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

উপস্থিত নেতারা হাত উঁচিয়ে শপথ গ্রহণ করেন। তাঁরা আগামী সকল নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে ভোট দেওয়ার ও শৃংখলা রক্ষার শপথ গ্রহণ করেন। এছাড়াও তৃণমূলের নেতারা দলীয় নেতাদের প্রতি অনুগত থাকার অঙ্গীকার করেন।
দলীয় শৃংখলা ভঙ্গের অভিযোগে গত ১৯ অক্টোবর উপজেলা আওয়ামী লীগের নয় নেতাকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।
স/শ

Print