নিষিদ্ধ মাছ রান্না করায় প্রকাশ্যে ধর্ষণ শেষে হত্যা

October 11, 2017 at 7:43 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক:

একটি হোটেলে নিষিদ্ধ মাছ রান্না করে পরিবেশন করেছিলেন তিনি। এই অপরাধে এক আদিবাসী নারীকে প্রকাশ্যে গণধর্ষণের পর বেত্রাঘাত, শেষে শিরশ্ছেদ করা হয়।
ঘটনাটি ঘটেছে আফ্রিকার দেশ কঙ্গোতে। ঘটনাটি ঘটিয়েছে দেশটির একটি বিদ্রোহী সংগঠন।

গত ৮ এপ্রিল নৃশংস ঘটনা ঘটে। ওই নারীকে ধর্ষণ ও হত্যার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়েছে। যা নিয়ে অনেকেই সমালোচনা করছেন ওই বিদ্রোহী গোষ্ঠীর।

ওই নারী গ্রামে একটি হোটেল পরিচালনা করতেন। হোটেলে নিষিদ্ধ মাছ রান্না করে পরিবেশন বিদ্রোহীদের খেতে দিয়েছিলেন তিনি। আর এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে নৃশংসতার মাত্রা ছাড়িয়ে যায় বিদ্রোহীরা।

ভিডিওতে দেখা যায় বিদ্রোহীদের একটি দল ওই নারীর চুল ধরে টেনে-হেঁচড়ে হোটেলের বাইরে নিয়ে যায়।
পরে তাকে উলঙ্গ করে বেত্রাঘাত করা হয়। এরপরের দৃশ্য আরও মর্মান্তিক। ওই নারীকে ধর্ষণে সৎ ছেলেকে বাধ্য করা হয়।

বিদ্রোহীদের এই পাশবিক কাজে উস্কানি দেন অন্য এক নারী। এরপর তাকে হত্যা করা হয়। কয়েকজন বিদ্রোহী ওই নারীর রক্ত পান করেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।

Print