জনগণের রায় নিয়ে আ.লীগ আবার ক্ষমতায় আসবে: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী

August 12, 2017 at 10:04 pm

বাঘা প্রতিনিধি:
আওয়ামীলীগের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখে জনগনের রায় নিয়ে আওয়ামীলীগ আবারও ক্ষতায় আসবে। উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশ গড়তে আওয়ামীলীগের বিকল্প নেই। শনিবার বাউসা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বঙ্গবন্ধুর ৪২ তম শাহাদত বার্ষিকী উপলক্ষে বাউসা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের আয়োজনে দোয়া ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপি এসব কথা বলেন।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই দেশ এক সময় ইংরেজ, মুঘোল এবং পাকিস্থানী দ্বারা শাসিত হয়েছে। কিন্তু জাতীর পিতা পৃথিবীর ভু-খন্ডে এই দেশকে স্বাধীন দেশ গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন। তাই ৩৪ বছর বয়সে তিনি মন্ত্রীত্ব ইসতেফা দিয়ে স্বাধীনতার ডাক দিয়ে দেশখে হানাদার মুক্ত করেছেন। তবে আমি যতদিন বেঁচে থাকবো বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কথা বলবো। আমার লজ্জা হয়, ইংরেজ ও পাকিস্থানীরা জাতীর পিতাকে মারেনি। মেরেছে আমাদের দেশের কতিপয় ষড়যন্ত্রকারীরা। তারা সেখানেও ক্ষান্ত হননি, তারা হত্যা করেছেন জাতীয় চার নেতা এবং দেশের বৃদ্ধিজীবিদের। এছাড়া নির্বাচন এলে অতিথি পাখি বাড়ে। অনেকেই ব্যাক্তি স্বার্থ নিয়ে চিন্তা করেন।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ১৫ আগষ্টের হত্যাযজ্ঞ থেকে আমাদের শিক্ষা অর্জন করতে হবে। যারা বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে জানতে চান তারা ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে যাবেন। জাতীর জনককে কি নির্মমভাবে খুন করা হয়েছিল। সেই ইতিহাস সেখানে লিপিবদ্ধ আছে। জাতীর পিতা ৩৪ বছর বয়সে দেশকে স্বাধীন করার জন্য পাকিস্থানের মন্ত্রীসভা থেকে ইস্তেফা দিয়েছিলেন। তিনি যদি নিজের স্বার্থকে বড় করে দেখতেন, তাহলে ওই সময়ে তার নের্তৃত্ব ত্যাগ করার কথা নয়। কিন্তু তিনি যা করেছেন, দেশের মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর জন্যই করেছেন।

তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগষ্ট জাতীর পিতার স্বপরিবারকে খুন হবার পর বিএনপি দীর্ঘদিন খুনিদের বিচার হতে দেয়নি। ফলে আর একবার বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় এনে দেশের বাইরে পালিয়ে থাকা খুনিদের খুজে এনে তাদের বাংলার মাটিতে বিচার কার্যকর করার সুযোগ দেওয়ার আহবান জানান।

আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীক বিজয়ী হলে দেশকে মধ্যম আয়ের দেশ হিসেবে পরিনত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করে দলের তৃণমুল নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের কথা আপনাদের নিশ্চয় মনে আছে। উপজেলার তুলশীপুরে জামায়াত-বিএনপিরা নারকীয় ঘটনা ঘটিয়েছিল। আগামী নির্বাচনের আগে থেকে তারা চক্রান্ত শুরু করেছে। তাদের প্রতিহিত করার জন্য তৈরী থাকার আহবান জানান নেতা-কর্মীদের।

আয়োজিত শোক সভায় সভাপতিত্ব করেন বাউসা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি অধ্যক্ষ সাইফুল ইসলাম টগর। সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হোসেনের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি আজিজুল আলম, সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম মন্টু, অধ্যক্ষ নছিম উদ্দিন, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ওয়াহেদ সাদেক কবীর, আড়ানী পৌর মেয়র মুক্তার আলী, আড়ানী পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি শহীদুজ্জামান শাহীদ, সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মতি, বাঘা পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল কুদ্দুস, আড়ানী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, বাউসা ইউনিয়ন চেয়ারম্যান শফিকুর রহমান শফিক, জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ নুর মোহাম্মদ তুফান, জয়জয়ন্তী সরকার মালতি, মহিলা আওয়ামীলীগের নেত্রী ফাতেমা খাতুন লতা, যুবলীগ নেতা কামরুজ্জামান নিপন, মোকাদ্দেস হোসেন, কামরুল হাসান জুয়েল, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা নাজমুল হোসেন, জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক বিপাশা খাতুন প্রমুখ।

শেষে বঙ্গবন্ধুর পরিবারের আতœার মাগফিরাত কামনায় দোয়া করা হয়।
স/শ

Print