এখনও ভিসা হয়নি ২৪ হাজার হজযাত্রীর

August 12, 2017 at 8:00 pm

সিল্কসিটিনিউজ ডেস্ক: প্রায় ২৪ হাজার হজযাত্রীর ভিসা এখনও হয়নি। যদিও ১৭ আগস্ট পর্যন্ত ভিসা ইস্যুর সর্বশেষ তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিল। যেসব এজেন্সি হজযাত্রীদের ভিসা আবেদন-প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেনি, সেগুলোকে ১৩ আগস্টের মধ্যে ভিসা-প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে ডিও ইস্যুর জন্য হজ পরিচালকের কাছে পাসপোর্ট পাঠাতে নির্দেশ দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, ব্যর্থতার জন্য দায়ী এজেন্সির হজ লাইন্সেস বাতিল, জামানত ও হজযাত্রীর অনুকূলে জমাকৃত উড়োজহাজভাড়া বাজেয়াপ্ত করা হবে। শনিবার ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব (হজ-২) এসএম মনিরুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো  হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ১৭ আগস্ট পর্যন্ত ভিসা ইস্যুর সর্বশেষ তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। কিন্তু উদ্বেগের সঙ্গে জানানো যাচ্ছে যে, এখনও অনেক এজেন্সি ভিসা আবেদন পাঠায়নি। এ কারণে  হজযাত্রীদের ভিসা পেতে সমস্য সৃষ্টি হতে পারে। এই অবস্থায় যেসব এজেন্সি হজযাত্রীর ভিসা আবেদন সম্পন্ন করেনি, তাদের ১৩ আগস্টের মধ্যে ভিসা আবেদন সম্পন্ন করে ডিও ইস্যু জন্য পরিচালক (হজ), আশকোনা পাসপোর্ট পাঠাতে অনুরোধ করে ধর্ম মন্ত্রণালয়। একইসঙ্গে একাজে ব্যর্থতার জন্য দায়ী এজেন্সিগুলোর হজ লাইন্সেস বাতিল, জামানত ও হজযাত্রীর অনুকূলে জমাকৃত উড়োজহাজভাড়া বাজেয়াপ্ত করা হবে বলেও জানানো হয়।

এ প্রসঙ্গে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব (হজ) এস এম মনিরুজ্জামান বলেন, ‘নির্ধারিত সময়ে যেন হজযাত্রীরা ভিসা পান, এ জন্য ১৩ আগস্ট পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে। আশা করি, এজেন্সিগুলো এ সময়ের মধ্যেই ভিসা আবেদন সম্পন্ন করবে। না হলে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

জানা গেছে, শনিবার (১২ আগস্ট) পর্যন্ত  ভিসা হয়েছে প্রায় ১ লাখ ৩ হাজার হজযাত্রীর। শনিবার  সকাল ৮টা পর্যন্ত ৫৮ হাজার ৯৬০ জন হজযাত্রী ঢাকা ছেড়েছেন। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২৭ হাজার ৪জন হজযাত্রী পরিবহন করেছে। সৌদি অ্যারাবিয়ান এয়ারলাইন্স ৩০ হাজার ৯৫৬ জন হজযাত্রী পরিবহন করেছে।

সূত্র জানায়, হজ এজেন্সিগুলোর গাফিলতি ও অতি মুনাফার লোভের কারণেই একের পর এক হজফ্লাইট বাতিল হয়েছে। ২৪ জুলাই হজফ্লাইট শুরুর পর থেকে ভিসা ও হজযাত্রীদের বাড়িভাড়া সংক্রান্ত  জটিলতার কারণে প্রায় ২৫টি হজফ্লাইট বাতিল হয়েছে। এতে অনিশ্চয়তার মধ্য রয়েছে শত-শত যাত্রীর হজযাত্রা। বেশি মুনাফার লোভে অনেক হজ এজেন্সি দেরিতে মক্কা-মদিনায় বাড়ি ভাড়া করেছে। নিয়ম অনুযায়ী, হজযাত্রীদের ফ্লাইটের আগেই সৌদি আরবে বাড়ি ভাড়া করে ভাড়ার রসিদ ও বিমানের টিকিট নিশ্চিত করে হজ অফিস থেকে ডিও লেটার নিতে হয়। সৌদি আরবে বাড়ি ভাড়া না করার কারণে অনেক হজযাত্রী ভিসা পেয়েও যেতে পারছেন না।

নির্ধারিত সময়ের আগে সব হজযাত্রীর ভিসা-প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা সম্ভব হবে বলে জানিয়েছেন হজ অফিসের পরিচালক সাইফুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘প্রতিদিনই ভিসার আবেদন বাড়ছে। আশা করি, নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সবার ভিসা হয়ে যাবে। সব হজযাত্রী সৌদি আরবে যেতে পারবেন।’ সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

Print